যথাযথ মর্যাদায় ৫১তম মহান বিজয় দিবস উদযাপন করেছে জাপানের টোকিওস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস। বিদ্যমান করোনা স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশি, জাপানিজসুধীজন এবং দূতাবাসের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা এ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ নেন।

শুক্রবার সকালে জাতীয় সংগীতের মূর্ছনায় জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে দূতাবাস প্রাঙ্গণে দিনের কার্যক্রম শুরু করেন জাপানে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত শাহাবুদ্দিন আহমদ। পরে মহান মুক্তিযুদ্ধে বীর শহীদদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। দূতাবাসের বঙ্গবন্ধু মিলনায়তনে অনুষ্ঠানের পরবর্তী অংশে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও চার জাতীয় নেতাসহ মহান মুক্তিযুদ্ধের বীর শহিদদের আত্মার মাগফিরাত ও শান্তি কামনা করে, দেশ ও দেশের জনগণের শান্তি ও সমৃদ্ধির জন্যে বিশেষ মোনাজাত করা হয়। মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কর্তৃক প্রদত্ত বাণী পাঠ করেন দূতাবাসের কর্মকর্তারা।

বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে জাপানি জনগণের অকুণ্ঠ সমর্থন ও সহযোগিতার জন্য রাষ্ট্রদূত জাপানের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, স্বাধীনতা লাভের পর থেকেই জাপান বাংলাদেশের পরীক্ষিত বন্ধুরাষ্ট্র। ১৯৭৩ সালে বঙ্গবন্ধুর জাপান সফরের মাধ্যমে বাংলাদেশে-জাপান সম্পর্কের ভিত্তি সূচিত হয়েছিল, যা ক্রমশই সুদৃঢ় হয়েছে। বিশেষ করে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জাপান সফরের মাধ্যমে বিগত ১৩ বছরে আরও ব্যাপক ও বহুমাত্রিক সম্পর্ক তৈরি হয়েছে।

আলোচনা পর্বে সাবেক রাষ্ট্রদূত মাতসুহিরু হরিগুচি, জাপান বাংলাদেশ সোসাইটির প্রেসিডেন্ট, সাবেক রাষ্ট্রদূত মাসাতো ওয়াতানাবে, সাবেক রাষ্ট্রদূত কিইয়কাজু ওটা এবং টোকিওস্থ দূতাবাসে স্থাপিত বঙ্গবন্ধুর আবক্ষ ভাস্কর্যের শিল্পী ড. ওতসুবো ওসামু বক্তব্য দেন।

Previous post মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশ হাইকমিশনে বিজয় দিবস উদযাপন
Next post কুয়েতে বিজয় দিবস উদযাপন
Close