ইমরান খানকে নিশ্চিত মৃত্যুর হাত থেকে বাঁচিয়েছেন ৩০ বছর বয়সের এক যুবক। ইমরানের ওপর যখন গুলি হামলা চালানো হচ্ছে, তখন হামলাকারীর পিছনেই ছিলেন তিনি। ঠিক সময়ে হামলাকারী যুবকের বন্দুক ধরা হাতটি টেনে নেন তিনি। লক্ষ্যভ্রষ্ট হয় ছয় রাউন্ড গুলি। যা হয়তো ইমরানের বুকে লাগতে পারত। তবে লাগেনি। বদলে গুলি এসে লাগে ইমরানের পায়ে। জখম হলেও প্রাণে বেঁচে গেছেন পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান।

মোক্ষম মুহূর্তের একটি ছবি সিসিটিভি ক্যামেরায় বন্দি হয়েছে। সেখানে বন্দুক হাতে দেখা যাচ্ছে হামলাকারীকে। তবে তার বন্দুকটির নল আকাশের দিকে তাক করা। কারণ পেছন থেকে তার বন্দুক ধরা হাতটি টেনে ধরেছেন ওই যুবক। তার পরনে লাল, সাদা ও নীল রঙের একটি টি-শার্ট ছিলো। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

ওই বন্দুক থেকে মোট ছয় রাউন্ড গুলি চলেছে। লক্ষ্যে লাগেনি। তবে লাগলে একা ইমরান নয়, আরও অনেকেরই প্রাণ যেতে পারত। সেই পরিণামের কথা ভেবেই ওই যুবককে নায়কের আসনে বসিয়েছেন অনেকেই। একটি টিভি ফুটেজে দেখা যাচ্ছে তাকে কাঁধে করে বয়ে নিয়ে যাচ্ছেন ইমরান সমর্থকেরা। তার ছবির নিচেও ‘হ্যাশট্যাগ আওয়ার হিরো’ অর্থাৎ আমাদের নায়ক লিখেও পোস্ট করেছেন ঘটনাস্থলে উপস্থিত ইমরানের সমর্থকেরা। পাকিস্তানের কোনো সংবাদ সংস্থাই এখনো ওই যুবক নাম-পরিচয় জানায়নি।

Previous post বাড়াবাড়ি করলে খালেদা জিয়াকে আবার জেলে পাঠাব : প্রধানমন্ত্রী
Next post ‘ইমরান খানকে মেরে ফেলারই চেষ্টা করেছিলাম’
Close