পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বর্তমানে নির্বাচনের দাবিতে লড়াই করছেন ক্ষমতাসীন সরকারের বিরুদ্ধে। আর তার এই লড়াইকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের লড়াইয়ের সঙ্গে তুলনা করেছেন ইমরান খান। আওয়ামী লীগ নেতা শেখ মুজিবর রহমান যেভাবে সত্যিকার মুক্তির জন্য লড়াই করেছে, তিনিও ঠিক সেভাবে লড়াই করছেন বলে মন্তব্য করেন তিনি। পাকিস্তানি প্রত্রিকা ডনের প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা যায়।

নির্বাচনের দাবিতে ২৮ অক্টোবর থেকে লংমার্চ পালন করছে পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই)। হাকিকি আজাদি-২ নামক এই লংমার্চের পঞ্চম দিন মঙ্গলবার (১ নভেম্বর) গুঞ্জরাওয়ালায় পিটিআইয়ের সমাবেশে উপস্থিত হয়ে ইমরান খান বলেন, ‘নির্বাচনের পর আওয়ামী লীগকে ক্ষমতার কর্তৃত্ব দেওয়া হয়নি। এর ফলে পাকিস্তানের পূর্বাংশ তথা পূর্ব পাকিস্তান ‘বাংলাদেশ’ নামে স্বাধীন রাষ্ট্র হয়ে যায়।’

আওয়ামী লীগ গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচনে জয়ের পরও সাংবিধানিকভাবে দেশ শাসনের অনুমতি না পাওয়ায় ১৯৭১ সালে পাকিস্তান কীভাবে দু’ভাগ হয়ে যায় তা মনে করিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বাধীন আওয়ামী লীগকে ‘নির্বাচনী ম্যান্ডেট’দিতে অস্বীকৃতি জানানো হয়েছিল আর সেই কারণে দেশের পূর্বাঞ্চলের অর্ধেক পাকিস্তান থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে।’

তৎকালীন আওয়ামী লীগের সঙ্গে বর্তমান পিটিআইয়ের তুলনা করে ইমরান খান আরও বলেন, ‘শেখ মুজিবুর রহমান এবং তার দল ১৯৭০ সালের সাধারণ নির্বাচনে জিতেছিল। ক্ষমতা হস্তান্তর করার পরিবর্তে একজন চতুর রাজনীতিবিদ আওয়ামী লীগ এবং সেনাবাহিনীকে সংঘর্ষের পথে নামিয়ে দিয়েছিলেন। বর্তমানে নওয়াজ শরিফ এবং আসিফ জারদারি একই ভূমিকা পালন করছেন।’

Previous post জার্মান আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত
Next post নয়াদিল্লিতে প্রেস মিনিস্টার শাবান মাহমুদের মেয়াদ বাড়ল দুই বছর
Close