ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে আজ মঙ্গলবার আনুষ্ঠানিকভাবে দায়িত্ব পেয়েছেন ঋষি সুনাক। তিনি দেশটির ৫৭তম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নিলেন। প্রধানমন্ত্রী হয়ে ডাউনিং স্ট্রিট থেকে প্রথমবারের মতো জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিয়েছেন। ভাষণে সুনাক ঐক্যের ডাক দিয়েছেন। খবর বিবিসির।

সুনাক বলেন, আমাকে ভুলগুলো ঠিক করার জন্য নিযুক্ত করা হয়েছে। আমি আমার দেশকে ঐক্যবদ্ধ করবো, তা কথার মাধ্যমে না কাজের মাধ্যমে। আমি বুঝতে পেরেছি এই মুহূর্ত আমাদের কত কঠিন সময়।

ভাষণে সুনাক দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের প্রশংসা করেছেন। সুনাক বলেন, প্রধানমন্ত্রী হিসেবে বরিসের অবিশ্বাস্য অর্জনের কারণে আমি তার প্রতি সবসময় কৃতজ্ঞ থাকবো।

এ ছাড়া দেশের গভীর অর্থনৈতিক সংকটের কথা স্বীকার করেছেন সুনাক। এই নিয়ে ভাষণে তিনি বলেছেন, দেশের অর্থনীতি স্থিতিশীলতা ফিরে আনতে আমাদের কঠিন সিদ্ধান্ত নেওয়া জরুরি হয়েছে।

ব্রিটেন অবিশ্বাস্য কিছু অর্জন করতে পারে বলে ভাষণে উল্লেখ করেছেন দেশটির ৫৭তম প্রধানমন্ত্রী।

বাকিমহাম প্যালেসে ব্রিটেনের তৃতীয় রাজা চার্লসের সঙ্গে দেখা করেন সুনাক। সেখানেই রাজা চার্লস সুনাককে দেশটির প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নিযুক্ত করেছেন।

এক বছরের মধ্যেই দেশটি তিনজনকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে পেল। এর আগে ইতিহাস গড়ে ক্ষমতাসীন পার্টি কনজারভেটিভ পার্টির নেতা নির্বাচিত হয়েছেন ঋষি সুনাক। এ ছাড়া মাত্র ৪২ বছরের সুনাক হচ্ছেন ২০০ বছরের বেশি সময়ের মধ্যে ব্রিটেনের সবচেয়ে কম বয়সী প্রধানমন্ত্রী।

এর আগে একই বয়সে রবার্ট ব্যাংক্স জেনকিনসন ১৮১২ ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্বে বসেন। পরবর্তীতে ডেভিড ক্যামেরন ৪৩ বছর বয়সে ২০১০ সালে সবচেয়ে কম বয়সী ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী আরেক রেকর্ড গড়েন।

Previous post লস এঞ্জেলেসে লিটল বাংলাদেশ অ্যাওয়ার্ড ২০২২ প্রদান
Next post ৬ মাসের বেশি বাইরে থাকলেই ভিসা বাতিল
Close