লস এঞ্জেলেসস্থ বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর কনিষ্ঠ পুত্র শহীদ শেখ রাসেল-এর ৫৯তম জন্মদিন ও শেখ রাসেল দিবস পালন করেছে।

বাংলাদেশ কমিউনিটি ও কনস্যুলেটের সদস্যসহ কনসাল জেনারেল জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর কনিষ্ঠ পুত্র শহীদ শেখ রাসেল এর প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পণ করেন। পবিত্র ধর্মগ্রন্থ থেকে পাঠ করার পর দিবসটি উপলক্ষ্যে প্রেরিত মহামান্য রাষ্ট্রপতি ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এর বাণী পাঠ করাহয়।

অনুষ্ঠানে শেখ রাসেলের জীবনীর উপর নির্মিত একটি ভিডিও চিত্র প্রদর্শন করা হয়। এছাড়াও শিশুকিশোরদের অংশগ্রহণে শেখ রাসেল-এর উপর চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা এবং বিশেষ আলোচনা ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়।

কনসাল জেনারেল সামিয়া আঞ্জুম তাঁর বক্তব্যের শুরুতেই জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-এর প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন। এছাড়াও তিনি শহীদ শেখ রাসেলসহ ১৯৭৫ এর ১৫ আগস্ট এর কালোরাতে নিহত জাতির পিতার পরিবারের সদস্যসহ সকল শহিদ-এর স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর কনিষ্ঠ পুত্র শহীদ শেখ রাসেল সম্পর্কে সংক্ষেপে আলোচনাকালে বলেন যে, শেখ রাসেল-এর মহানুভবতা ও অত্যন্ত বিনয়ী স্বভাবের জন্য তিনি সকলের মাঝে চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবেন। শেখ রাসেল আজ আমাদের মাঝে না থাকলেও তিনি বিশ্বে অধিকার বঞ্চিত শিশুদের জন্য অনুপ্রেরণার প্রতীক ও মানবিক সত্তা হিসাবে সবার মাঝে বেঁচে আছেন।

তিনি আশা প্রকাশ করেন যে, বাংলাদেশের সকল শিশু-কিশোর শেখ রাসেলের মানবিক গুনাবলী থেকে শিক্ষা গ্রহণ করে নিজেদেরকে সু-নাগরিক হিসাবে প্রতিষ্ঠা করতে এবং দেশ ও জাতি গঠনে ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবে। আর কোন শিশু যেন শেখ রাসেলের মত নির্মম নৃশংসতার শিকার না হয় এবং সকল শিশুকিশোরদের স্বাভাবিক বিকাশ ও নিরাপদ পরিবেশে বেড়ে উঠা নিশ্চিতকল্পে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজকরার জন্য তিনি আহবান জানান।

Previous post সৌদিতে সড়ক দুর্ঘটনায় বাংলাদেশি নিহত
Next post যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত শহীদুলের নিয়োগ বাতিল
Close