চলতি অক্টোবর মাসের প্রথম ছয় দিনে প্রবাসীরা দেশে ৩৫ কোটি ৭৭ লাখ (৩৫৭ মিলিয়ন) ডলার পাঠিয়েছেন। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের হালনাগাদ পরিসংখ্যানে এমন তথ্য উঠে এসেছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তারা বলছেন, এই ধারা অব্যাহত থাকলে এই মাসে প্রবাসী আয়ের পরিমাণ ১৮০ কোটি ডলারে দাঁড়াতে পারে। ২০২২-২৩ অর্থবছরের সেপ্টেম্বরে ১৫৪ কোটি ডলার দেশে পাঠিয়েছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা। এই অংক গত সাত মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন। এর আগে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে দেশে ১৪৯ কোটি ডলারের রেমিট্যান্স এসেছিল।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, চলতি অক্টোবরের প্রথম ছয় দিনে রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন পাঁচ বাণিজ্যিক ব্যাংকের মাধ্যমে রেমিট্যান্স এসেছে সাত কোটি ৪৬ লাখ মার্কিন ডলার। বেসরকারি ব্যাংকের মাধ্যমে রেমিট্যান্স এসেছে ২৭ কোটি ৬০ লাখ মার্কিন ডলার। বিদেশি ব্যাংকগুলোর মাধ্যমে এসেছে ১৩ লাখ মার্কিন ডলার। আর বিশেষায়িত একটি ব্যাংকের মাধ্যমে এসেছে এক কোটি ৫৮ লাখ মার্কিন ডলার।

এই মাসের প্রথম ছয় দিনে সবচেয়ে বেশি রেমিট্যান্স এসেছে বেসরকারি ইসলামী ব্যাংকের মাধ্যমে। ব্যাংকটির মাধ্যমে প্রবাসীরা পাঠিয়েছেন আট কোটি ৪৫ লাখ ডলার। এরপর সোনালী ব্যাংকে দুই কোটি ৩১ লাখ, অগ্রণী ব্যাংকে দুই কোটি ২৫ লাখ, আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংকে দুই কোটি ২১ লাখ এবং ডাচ–বাংলা ব্যাংকে এক কোটি ৯৪ লাখ ডলারের প্রবাসী আয় এসেছে।

অবশ্য গত আগস্ট মাসে ২০৩ কো‌টি ৭৮ লাখ ডলারের রেমিট্যান্স এসেছে। তার আগের মাস জুলাইয়ে এসেছিল ২০৯ কোটি ৬৩ লাখ ডলার। জুলাই মাসে পবিত্র ঈদুল আজহার কারণে দেশে বিপুল পরিমাণ রেমিট্যান্স এসেছিল। তবে আগস্টে বড় উৎসব ছিল না। এরপরও প্রবাসী আয় ২০০ কোটি ডলার ছাড়ায়।

Previous post অভিভাবক ছাড়াই হজে যেতে পারবেন নারীরা
Next post প্রবাসীদের নিরাপদ গন্তব্যের তালিকায় তৃতীয় পর্তুগাল
Close