রক্তের সম্পর্কের আত্মীয় ছাড়াই নারীরা এখন হজ বা ওমরাহ করতে সৌদি আরব যেতে পারবেন। মিশরে সৌদি দূতাবাসে এক সংবাদ সম্মেলনে সৌদি হজ ও ওমরাহ মন্ত্রী তৌফিক আল-রাবিয়াহ সোমবার এ ঘোষণা দেন।

মন্ত্রী জানান, হজ ও ওমরাহ পালনের খরচ কমানোর বিষয়ে সৌদি আরব আগ্রহী। এ ছাড়া যারা পবিত্র কাবা ও মসজিদে নববী পরিদর্শন করতে আগ্রহী তাদের সেবা সংক্রান্ত বিষয়গুলো ডিজিটাইজেশনের কাজ চলছে।

সৌদি গেজেট এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, এ ঘোষণার মধ্যে দিয়ে নারী হজযাত্রীরা অভিভাবক ছাড়াই হজে যেতে পারবেন কি না, সে বিতর্কের অবসান হলো।

হজ এজেন্সি অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের সভাপতি এম শাহাদাত হোসেন তাসলাইম বলেন, ‘সৌদি কর্তৃপক্ষের নতুন ঘোষণা নারীদের হজ পালনে ইতিবাচক ভূমিকা রাখবে।’

তৌফিক আল-রাবিয়াহ বলেন, ‘সারা বিশ্বের মুসলমানদের জন্য ওমরাহ ভিসার কোনো কোটা বা সীমা নেই। যে কোনো দেশের মুসলমান যে কোনো ধরনের ভিসা নিয়ে সৌদিতে এসে ওমরাহ পালন করতে পারবেন।’

Previous post ‘গণগ্রেপ্তার’ ও পুলিশি অভিযান নিয়ে এইচআরডব্লিউর উদ্বেগ
Next post গতি কমেছে প্রবাসী আয়ে
Close