রাজপথ দখলে নিতে দলীয় নেতাকর্মীদের নির্দেশ দিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘বিএনপির নেতারা বলছে, রাজপথ দখলে নেবে। রাজপথ বিএনপির বাপ-দাদার সম্পত্তি নয়। রাজপথ জনগণের। রাজপথ এই নগরীর। রাজপথ ঢাকাবাসীর।’

মঙ্গলবার (২০ সেপ্টেম্বর) বিকেলে আওয়ামী লীগের রাজধানীর লালবাগ থানা ও চারটি ওয়ার্ড শাখার সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘রাজপথে আন্দোলনে করুন শান্তিপূর্ণভাবে। আসুন, খেলা হবে। আমরা মাঠ ছাড়ব না। রাজপথ দখল নিতে হবে। সতর্ক অবস্থায় থাকতে হবে। আপনারা ফাঁকা মাঠে তাফালিং করবেন, আর আওয়ামী লীগ আঙ্গুল চুষবে, এটা মনে করবেন না।’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘২২ দলীয় জোট গতবারও ছিল। সেই ২২ দলের অবস্থা জগাখিচুড়ি, ছত্রভঙ্গ। এবারও পরিণতি হচ্ছে আষাঢ়ের তর্জন-গর্জনই সার। কাজেই লাফালাফি করবেন না, বাড়াবাড়ি করবেন না। আমাদের নেতাদেরও বলব লাফালাফি, বাড়াবাড়ি করবেন না। নির্বাচনের ১৪ মাস বাকি।’

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বিশৃঙ্খলা করলে প্রধানমন্ত্রী ছাড় দেবেন না, জানিয়ে তিনি বলেন, ‘স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে বলে এসেছি, ক্যাম্পাসে যারা বিশৃঙ্খলা করবে, ছাত্রছাত্রীদের পড়াশোনার ক্ষতি করবে, কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার পরিবেশ নষ্ট করবে, শেখ হাসিনা তাদের রেহাই দেবেন না।’

দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিসহ সব সংকট কেটে দেশ স্বস্তির দিকে যাচ্ছে, দাবি করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আমি জনগণকে বলব, আপনারা কষ্ট করছেন, এ কষ্ট আমাদের সৃষ্টি নয়। আজকে জীবনযাত্রার মান, আজকের টেনশন, জ্বালানির দাম সারা বিশ্বে বেড়ে গেছে। ইউক্রেন-রাশিয়ার যুদ্ধ এই সংকটকে আরও প্রকট করেছে। শেখ হাসিনা বিভিন্নভাবে চেষ্টা করছেন। চিন্তা করবেন না, বাংলাদেশে এমন কোনো সংকট হবে না। আগামী দিনগুলো ভালোই যাবে। এখনই স্বস্তির দিকে ফিরে যাচ্ছি। আমি জনগণকে বলব, আপনারা বঙ্গবন্ধুর কন্যার প্রতি বারবার আস্থা রেখেছেন।’

তিনি বলেন, ‘এ সংকট বেশি দিন থাকবে না। দুর্দিন চলে যাবে। আবার সুদিন আসবে। আমি আপনাদেরকে অপেক্ষা করার জন্য অনুরোধ জানাচ্ছি।’

Previous post বাংলাদেশকে ২ বিলিয়ন ডলার ঋণ দেবে এডিবি
Next post মানুষ এদেরকে আর ক্ষমতায় দেখতে চায় না : মির্জা ফখরুল
Close