জাতিসংঘের ৭৭তম সাধারণ অধিবেশনে যোগ দিতে আগামী ১৮ সেপ্টেম্বর যুক্তরাষ্ট্রে যাবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ইতোমধ্যেই প্রধানমন্ত্রীকে নিউইয়র্কের জন এফ কেনেডি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে উষ্ণ অভ্যর্থনাসহ নাগরিক সংবর্ধনা দিতে প্রস্তত হয়ে গেছে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ।

প্রধানমন্ত্রীর যুক্তরাষ্ট্র সফর সফল করতে গত কয়েকদিন ধরে দফায় দফায় আলোচনা করেছেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের নেতারা। আগামী ২৪ সেপ্টেম্বর শনিবার যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ আয়োজিত নাগরিক সংবর্ধনায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রবাসীদের উদ্দেশে ভাষণ দেবেন বলে জানিয়েছেন তারা।

আগামী ১৩ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার জাতিসংঘের ৭৭তম সাধারণ অধিবেশন শুরু হচ্ছে। জাতিসংঘের উচ্চ-স্তরের সাধারণ বিতর্ক শুরু হবে ২০ সেপ্টেম্বর থেকে। তাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিউইয়র্কে পৌঁছাবেন আগামী ১৮ সেপ্টেম্বর।

গত শুক্রবার নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসের ডাইভারসিটি প্লাজায় আওয়ামী লীগের এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমানের সভাপতিত্বে সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিউইয়র্ক সফর সফল করতে আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহ্বান জানানো হয়।

সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ বলেন, দলের নাম ব্যবহার করে একটি কুচক্রীমহল প্রায় প্রতিবছরই প্রধানমন্ত্রীর নাগরিক সংবর্ধনার আগে নানা ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা সৃষ্টি করে নিজেরা বড় নেতা হওয়ার চেষ্টা করে। তাদের হুঁশিয়ার করে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের নেতারা বলেন, দলের ভেতরে থেকে দলের বিরোধিতা না করে আসুন, আমাদের সঙ্গে কথা বলুন, আপনারা আসলে কী চান? আপনাদের দাবি পূরণের চেষ্টা করা হবে। অন্য দলের মানুষদের হাসানোর মতো কাজ করবেন না। সব ভেদাভেদ ভুলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিউইয়র্ক সফর সফল করতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহবান জানান নেতারা।

সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মহিউদ্দীন দেওয়ান, প্রচার সম্পাদক এনাম, আওয়ামী লীগ নেতা আশরাফুজ্জামান, খোরশেদ খন্দকার, মোর্শেদা জামান, তারিকুল হায়দার চৌধুরী, শাখাওয়াত বিশ্বাস ও যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগ নেতা মোহাম্মদ সেবুল মিয়া প্রমুখ।

Previous post আমিরাত থেকে ৮৭ শিক্ষার্থীর এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ
Next post ওয়াসার এমডির ছুটি মঞ্জুর, দায়িত্বে থাকবেন ডিএমডি
Close