অবশেষে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে প্রাচীণ সভ্যতার দেশ গ্রিসে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশিদের বৃহত্তর সংগঠন ‘বাংলাদেশ কমিউনিটি ইন গ্রিস’ এর নির্বাচন। প্রায় ৬ বছর পর বৃহত্তর এই সংগঠনের নেতৃত্বের বদল হচ্ছে।

ইউরোপের এই দেশটিতে বসবাস করেন প্রায় ৩০ হাজারেরও বেশি বাংলাদেশি। ১৯৯৮ সালে গ্রিসের বসবাসরত বাংলাদেশি প্রবাসীদের নিয়ে প্রথম গঠন করা হয় ‘বাংলাদেশ কমিউনিটি ইন গ্রিস’ নামের বৃহত্তর এই সংগঠন।

পর্যায়ক্রমে নির্বাচনের মাধ্যমে একাধিক প্রবাসী বিভিন্ন পদে নির্বাচিত হয়ে দায়ীত্ব পালন করেন। সবশেষে ২০১৬ সালে অনুষ্ঠিত হয় ৬ষ্ঠ তম নির্বাচন। এ কমিটিতে সভাপতি পদে বিজয়ী হন সিলেটের হাজী আব্দুল কুদ্দুছ ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন মাদারীপুরের খালেক মাতুব্বর।

২০২০ সালে ৭ম নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবার কথা থাকলেও করোনা মহামারির কারণে আর সম্ভব হয়নি।

এবার নানা জল্পনা কল্পনার পর নির্বাচনের প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে।

সম্প্রতি বিদায়ী কমিটির সাধারণ সম্পাদক খালেক মাতুব্বরকে প্রধান করে ৮ জনের একটি নির্বাচন কমিশন গঠন করা হয়েছে। সহকারী নির্বাচন কমিশনাররা হলেন, হাফেজ আব্দুল লতিফ, ওসমান গণি কামাল, জাকির হোসেন, আব্দুল বাছিত, এস আলম নিপু, ফজলুল হক, হুমায়ুন কবির ভুইয়া, মোশারফ হাওলাদার।

গত মঙ্গলবার স্থানীয় সময় বিকেলে গ্রিসে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আসুদ আহমেদের সাথে মতবিনিময় করেন নির্বাচন কমিশনের নেতৃবৃন্দ।

এতে উপস্থিত ছিলেন, দূতাবাসের মিনিষ্টার মোহাম্মদ খালেদ, প্রথম শ্রম সচিব বিশ্বজিৎ কুমার পাল। সভায় সদ্য বিদায়ী কমিউনিটির সভাপতি আব্দুল কুদ্দুস, সিনিয়র সহ সভাপতি আহসান উল্লাহ হাসান উপস্থিত থেকে নব গঠিত নির্বাচন কমিশনকে রাষ্ট্রদূতের সাথে পরিচয় করিয়ে দেন।
এসময় নির্বাচন কায়ক্রম পরিচালনায় সব ধরনের সার্বিক সহযোগীতার আশ্বাস দেন রাষ্ট্রদূত।

Previous post দুই বছরে যুক্তরাষ্ট্রে ঢুকেছে ১০ লাখ অবৈধ অভিবাসী
Next post দক্ষিণ আফ্রিকায় এক দিনে দুই বাংলাদেশি অপহৃত
Close