যুক্তরাষ্ট্রে আবারো পর পর দুটি এলাকায় বন্দুকধারীরা হামলা চালিয়েছে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। হাসপাতালে নয়জন চিকিৎসাধীন রয়েছেন। দুটো এলাকাতেই ধরাছোঁয়ার বাইরে রয়েছেন বন্দুকধারী।

প্রথম ঘটনা মেরিল্যান্ড এলাকায় ঘটেছে। স্থানীয় সময় বুধবার দুপুর ১২টা ২৪ মিনিট নাগাদ হঠাৎই গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। পুলিশ সূত্রে খবর, আততায়ীরা একটি কালো গাড়ি থেকে নেমে এলোপাথাড়ি গুলি ছুঁড়তে শুরু করে। ঘটনাস্থলেই একজনের মৃত্যু হয়। জখম হন আরও ছয়জন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয় পুলিশ বাহিনী। খবর সংবাদ প্রতিদিনের।

মেরিল্যান্ড এলাকার প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, ঘটনাস্থলে রক্তাক্ত অবস্থায় তিনজনকে পড়ে থাকতে দেখা যায়। স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে তাদের মধ্য়ে একজনকে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়। বাকি দুজনসহ মোট ছয় নের চিকিৎসা চলছে। পুলিশের ধারণা, নির্দিষ্ট একজনকে লক্ষ্য করেই গোলাগুলি করা হয়েছে।

পরবর্তী ঘটনাটি ওয়াশিংটনের ট্রাক্সটল এলাকার। বৃদ্ধাশ্রম ও হাই স্কুল চত্বরে গোলাগুলি চলে দুপুর একটা পর্যন্ত। পুলিশ সূত্র জানিয়েছে, কালো একটি গাড়ি থেকে নেমে দুজন আততায়ী এলোপাতাড়ি গুলি ছুঁড়তে শুরু করে। ঘটনাস্থলেই লুটিয়ে পড়েন কয়েকজন। তাদের মধ্যে দুজনের মৃত্যু হয়েছে। বাকি তিনজন হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন। ওয়াশিংটনের সহকারী নির্বাহী পুলিশ প্রধান আশহান বেনেডিক্ট বলেন, অন্তত সাত রাউন্ড গুলি চলেছে। গুলি চালিয়ে গাড়ি নিয়ে পালিয়ে যান তারা। ঘটনাস্থল থেকে তথ্যপ্রমাণ জোগাড় করার চেষ্টা করছে পুলিশ।

Previous post ট্রাম্পের বাড়ি থেকে ৭০০ পৃষ্ঠার ‘টপ সিক্রেট’ নথি উদ্ধার, যুক্তরাষ্ট্রে তোলপাড়
Next post ফোবানার নির্বাচন কমিশন গঠন
Close