লস এঞ্জেলেসস্থ বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর জ্যেষ্ঠ পুত্র বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদ ক্যাপ্টেন শেখ কামাল-এর ৭৩তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন করেছে।

বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদ ক্যাপ্টেন শেখ কামাল-এর প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সূচনা করা হয়। পবিত্র ধর্মগ্রন্থ থেকে পাঠ করার পর দিবসটি উপলক্ষে প্রেরিত মহামান্য রাষ্ট্রপতি ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এর বাণী পাঠ করা হয়। অনুষ্ঠানে বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদ ক্যাপ্টেন শেখ কামাল এর জীবনীর উপর নির্মিত ভিডিও চিত্র “এক আলোর পথযাত্রী-শেখ কামাল” প্রদর্শন করা হয়। এছাড়াও দিবসটি উপলক্ষ্যে বিশেষ আলোচনা ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়।

কনসাল জেনারেল সামিয়া আঞ্জুম তাঁর বক্তব্যে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর জ্যেষ্ঠ পুত্র বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদ ক্যাপ্টেন শেখ কামাল-এর স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করে উল্লেখ করেন যে, বহুমাত্রিক প্রতিভার অধিকারী বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদ ক্যাপ্টেন শেখ কামাল ছিলেন একাধারে দেশের সেরা ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সংগঠক, ক্রীড়াবিধ এবং অত্যন্ত মেধাবী ছাত্র। স্বাধীনতা পরবর্তী দেশের ক্রীড়া ও সংস্কৃতির উন্নয়নে তিনি অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন এবং এসকল ক্ষেত্রে তার অবিস্মরনীয় অবদানের জন্য তিনি যুব সমাজের মাঝে এক অনুকরণীয় আদর্শ হিসেবে চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবেন।

পরিশেষে, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব ও বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদ ক্যাপ্টেন শেখ কামালসহ ১৫ই আগস্টে শাহাদত বরণকারী বঙ্গবন্ধু পরিবারের সকল সদস্যদের রূহের মাগফেরাত এবং দেশের শান্তি, মঙ্গল ও উন্নয়ন কামনা করে বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠিত হয়।

Previous post নিউইয়র্কে বীর মুক্তিযোদ্ধা ক্যাপ্টেন শহিদ শেখ কামালের ৭৩তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন
Next post সরকারের সময় ফুরিয়ে এসেছে : মির্জা ফখরুল
Close