বিদেশি কর্মীদের জন্য কোটা পেতে সাহায্য করার উদ্দেশ্যে নিয়োগকর্তা বা এজেন্টদের ঘুষ গ্রহণের অভিযোগে মালয়েশিয়ার দুর্নীতি দমন কমিশন (এমএসিসি) আরো দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে।

মঙ্গলবার (২ আগস্ট) রাতে পৃথক অভিযানে এই দুইজনকে গ্রেপ্তার করে এমএসিসি। এদের একজন ব্যবসায়ী এবং অন্যজন রিক্রুটিং এজেন্সির মালিক।

গ্রেপ্তারকৃত ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে একজন নিয়োগকর্তা এজেন্টের কাছ থেকে ১ মিলিয়ন মালয়েশিয়ান রিঙ্গিতের বেশি ঘুষ নেওয়ার অভিযোগে তদন্ত করা হয়। অন্যজনের বিরুদ্ধে বিদেশি শ্রমিক নিয়োগে সহায়তা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান বেস্টিনেটকে ঘুষ দেওয়ার অভিযোগ ছিল। দু’জনকেই ৪ দিনের রিমান্ডে নেওয়ার আদেশ দিয়েছেন ম্যাজিস্ট্রেট ইরজা জুলাইখা বোরহানউদ্দিন।

মালয়েশিয়া দুর্নীতি দমন কমিশনের ডিরেক্টর অব ইনভেস্টিগেশন দাতুক সেরি হিশামুদ্দিন হাশিম বুধবার রিমান্ডের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেছেন, ‘এমসিসি আইন ২০০৯ এর ১৬ (এ) ধারায় মামলাটি তদন্ত করা হচ্ছে।’ আইটি সলিউশন প্রদানকারী বেস্টিনেটের অনিয়মের বিষয়ে এমসিসি’র তদন্ত নিয়ে তিনি বলেন, ‘এটির তদন্ত এখনো চলমান থাকায় এ বিষয়ে মন্তব্য করা উচিৎ হবে না।’

এর আগে গ্রেপ্তার আটজনের মধ্যে ছয়জনকে তিন দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়েছিল। অন্যদিকে, একজন পুরুষ ও একজন নারীকে জিজ্ঞাসাবাদের পর বক্তব্য রেকর্ড করে জামিনে মুক্তি দেওয়া হয়।