বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এখনো নিবিড় পর্যবেক্ষণে রয়েছেন।

মঙ্গলবার বেলা ২টায় তাঁকে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখার ৭২ ঘণ্টা সময় পার হয়েছে। তবে চিকিৎসকদের পরামর্শে পর্যবেক্ষণের সময় আরও বাড়ানো হয়েছে। বিএনপির চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান এ তথ্য জানান।

হঠাৎ অসুস্থ হওয়ায় খালেদা জিয়াকে গত শুক্রবার দিনগত রাতে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গত বছরের এপ্রিলে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর এ নিয়ে খালেদা জিয়াকে পাঁচ দফা বেসরকারি হাসপাতাল এভারকেয়ারে ভর্তি করা হলো। এর আগে ৬ এপ্রিল নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য তাঁকে একই হাসপাতালে নেওয়া হয়েছিল।

শায়রুল কবির বলেন, মেডিকেল বোর্ড বসেই খালেদা জিয়ার নিবিড় পর্যবেক্ষণের মেয়াদ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয়। এটা কতক্ষণ চলবে, তা তারা এখনো জানায়নি। তবে আজ তারা আবার বসবে। বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও খালেদা জিয়ার চিকিৎসক ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন জানান, শনিবার বেলা ২টা থেকে খালেদা জিয়াকে ৭২ ঘণ্টার জন্য নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। বর্তমানে হৃদরোগ বিশেষজ্ঞদের একটি দল খালেদা জিয়াকে দেখভাল করছেন।

বিএনপির একটি সূত্র বলছে, খালেদা জিয়ার চিকিৎসায় গঠিত বোর্ডে এভারকেয়ার হাসপাতালের ১২ জন আর বাইরের চিকিৎসক আছেন ৯ জন। বোর্ডের নেতৃত্বে আছেন এভারকেয়ার হাসপাতালের কার্ডিওলজি বিভাগের প্রধান শাহবুদ্দিন তালুকদার।

Previous post আমাদের প্রাণের পদ্মা সেতু
Next post জাতিসংঘের কার্যক্রমে যুক্ত হলো বাংলা ভাষা
Close