বিএনপি দলীয় সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা বলেছেন, ‘এই বাজেট ধনীকে আরও ধনী এবং সাধারণ মানুষকে আরও বেশি নাজুক করার বাজেট।’

বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদ ভবনের বাইরে বাজেট অধিবেশন শেষে সাংবাদিকদের কাছে এই প্রতিক্রিয়া জানান রুমিন। এ সময় তিনি এই বাজেটকে গতানুগতিক উচ্চবিলাসী ও স্বজনতোসী বলেও মন্তব্য করেন।

সংসদ সদস্য রুমিন ফারহানা বলেন, ‘এমন সময় আমরা বাজেট দিচ্ছি যখন করোনার ধাক্কা কাটিয়ে ওঠা শুরু করেছি। ইউক্রেন-রাশিয়ার যুদ্ধে পুরো অর্থনীতি, পুরো বিশ্ব বিপর্যস্ত। তবে, আমরা আশা করেছিলাম, গতানুগতিক বাজেটের বাইরে গিয়ে এই বাজেটে কিছু পাব। যে বাজেট সাধারণ মানুষের কথা বলবে, সাধারণ মানুষের জীবনে যে নিত্যনৈমিত্তিক সমস্যাগুলোকে অ্যাড্রেস করবে। কিন্তু, আনফরচুনেটলি আমরা সে রকম বাজেট পাইনি।’

ব্যারিস্টার রুমিন বলেন, ‘আপনারা জানেন যে, আমাদের আমদানি ব্যয় অনেক বেড়ে গেছে, রপ্তানি আয় সেই তুলনায় কম। মূল্যস্ফীতি আকাশচুম্বী, ডলারের দাম টাকার তুলনায় অনেক বেশি বেড়ে গেছে, নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টি হচ্ছে না। বেকারত্ব বৃদ্ধি পাচ্ছে। নানান সমস্যার মধ্যে দিয়ে এই বাজেট দেওয়া হয়েছে।’

রুমিন আরও বলেন, ‘আমরা আশা করেছিলাম—এই বাজেটে এই বিষয়গুলো বিবেচনা করা হবে। কিন্তু, না। আমরা দেখলাম, সেই একই গতানুগতিক বাজেট। উচ্চাবিলাসী বাজেট এবং যে বাজেটে দুই লাখ ৪৫ হাজার কোটি টাকা ঘাটতি থাকবে।’

রুমিন ফারহানা বলেন, ‘এই রকম অবস্থা নিয়ে বাজেটের যে লক্ষ্য, তা পূরণ করা হবে বলে আমরা মনে করি না। এই বাজেট স্বজনতোষী বাজেট। এই বাজেট ধনীকে আরও ধনী করার এবং সাধারণ মানুষকে আরও বেশি নাজুক করার বাজেট।’