ফাইনালের আগে রিয়ালের কোচ জানিয়েছিলেন, লিভারপুলের যদি প্রতিশোধ নেওয়ার থাকে, তবে রিয়াল মাদ্রিদেরও আছে। শেষ পর্যন্ত ১৯৮০-৮১ মৌসুমে প্যারিসের সেই হারের শোধ ঠিকই নিয়েছে রিয়াল। আর এই শিরোপা জয়ের মধ্য দিয়ে অবিশ্বাস্য এক রেকর্ড গড়লেন কোচ কার্লো আনচেলত্তিও।
শনিবার রাতে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে লিভারপুলকে ৫৯ মিনিটে এক মাত্র গোলে হারায় রিয়াল। গোলটি করেন ভিনিসিয়ুস জুনিয়র। এই প্যারিসেই চার দশকের বেশি সময় আগে রিয়ালকে ঠিক এই স্কোরলাইনে হারিয়েই উৎসবে মেতেছিল লিভারপুল। এবার তারা ফিরল একরাশ হতাশা নিয়ে।
এ নিয়ে ১৪তম বারের মতো ইউরোপ সেরার মুকুট জিতল রিয়াল। প্রথম কোচ হিসাবে চারটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতলেন আনচেলত্তি। ৬২ বছর বয়সী এই কোচের হাত ধরে এসি মিলান দুইবার ইউরোপ সেরার প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল, ২০০২-০৩ ও ২০০৬-০৭ মৌসুমে। রিয়াল কোচ হিসেবে চ্যাম্পিয়নস লিগের প্রথম শিরোপা স্বাদ আনচেলত্তি পেয়েছিলেন ২০১৩-১৪ মৌসুমে। এবার আরও একটি শিরোপা ঘরে তুললেন ইতালিয়ান এই ফুটবল ম্যানেজার।
জমজমাট ফাইনালের পর বিটি স্পোর্টসকে আনচেলত্তি জানিয়েছেন, শিরোপা ঘরে তোলা অবিশ্বাস্য মনে হচ্ছে তার কাছে, ‘আমি এটা বিশ্বাস করতে পারছি না। আমি হলাম রেকর্ডম্যান।’
এই ফাইনালের আগে আনচেলত্তির সঙ্গে সর্বাধিক তিনটি করে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শিরোপা জয়ী ছিলেন রিয়ালের সাবেক কোচ জিনেদিন জিদান ও লিভারপুলের সাবেক কোচ বব পেইজলি।
Previous post কানের স্বর্ণপাম সুইডেনের, সেরা অভিনেতা-অভিনেত্রী সং কাং-হো ও ইব্রাহিমি
Next post ইউক্রেনে অস্ত্র পাঠানো নিয়ে পশ্চিমাদের সতর্ক করলেন পুতিন
Close