পদ্মা সেতু নিয়ে আওয়ামী লীগ নেতাদের বিভিন্ন মন্তব্যের বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের মুখে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘পদ্মা সেতু কি আওয়ামী লীগের পৈতৃক সম্পত্তি? এটা কি পৈতৃক সম্পত্তি দিয়ে বানিয়েছেন? নাকি আমাদের জনগণের টাকা দিয়ে বানিয়েছেন? পুরোটাই তো আমাদের পকেটের টাকা কেটে নিয়েছে। ১০ হাজার কোটি টাকার প্রকল্প ৩০ হাজার কোটি টাকাতে নিয়ে ওখান থেকে চুরি করেছে। সুতরাং এসব কথা তাদের মুখে শোভা পায় না।’

বুধবার বিকালে গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব মন্তব্য করেন।

একই সাথে ‘পদ্মা সেতুর ওপর দিয়ে বিএনপি নেতারা যাতায়াত করতে গেলে তাদের ক্ষমা চেয়ে যাতায়াত করতে হবে’―আওয়ামী লীগের নেতা-মন্ত্রীদের এ রকম বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ার ব্যাপারে তিনি বলেন, এই বক্তব্যকে আমরা প্রত্যাখ্যান করি। এসব অপ্রকৃতিস্থ লোকদের মতো কথা।

এ সময় মির্জা ফখরুল বলেন, পদ্মা সেতু দিয়ে যাতায়াতে সরকার টোল বেশি নির্ধারণ করেছেন। এতে করে যারা যাতায়াত করবেন তাদের আগে যে ব্যয় হতো তার থেকে অনেক বেশি ব্যয় হবে।

যেমন অন্যান্য যে সেতু আছে, যমুনা সেতুতে পারাপারে যে টোল নেওয়া হয় তার চেয়ে অনেক বেশি আনুপাতিক হারে পদ্মা সেতুতে বেশি, অল মোস্ট ডাবল।

Previous post কাতারে বাংলাদেশের শ্রমবাজার উন্নয়নের আশ্বাস
Next post নিউইয়র্কে নানা আয়োজনে নৃত্যশিল্পী অনুপ দাসকে স্মরণ
Close