আন্দোলনের মুখে পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসে। রবিবার দেশটির প্রেসিডেন্ট গোটাবায়া রাজাপাকসের আহ্বানে এ সিদ্ধান্তে রাজি হন তিনি। এর মধ্য দিয়ে মন্ত্রিসভা ভেঙে দেয়া হয়। একই সময় দেশটির বিরোধী দলের নেতা সাজিথ প্রেমাদাসাকে প্রধানমন্ত্রী হওয়ার জন্য আহ্বান করেন প্রেসিডেন্ট গোটাবায়া রাজাপাকসে। মাহিন্দার পদত্যাগের পর সংসদ ভেঙে দেয়া হয়েছে এবং দেশজুড়ে কারফিউ জারি করা হয়েছে।

সোমবার (৯ মে) ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম এনডিটিভি এ খবর জানায়। এর আগে মাহিন্দা রাজাপাকসের পদত্যাগ সম্পন্ন হলে আগামী সপ্তাহের মধ্যে মন্ত্রিসভা রদবদলের কথা জানানো হয়।

এপ্রিল থেকে শ্রীলঙ্কায় অর্থনৈতিক সংকট শুরু হয়েছিল। বিভিন্ন দেশের কাছে ঋণে জর্জরিত শ্রীলঙ্কা নিজেকে ‘অর্থনৈতিকভাবে দেউলিয়া’ ঘোষণা করে। তারপর থেকেই প্রধানমন্ত্রী রাজাপাকসের ইস্তফার দাবি জোরদার হয়েছিল এ দ্বীপ রাষ্ট্রে। এ বিষয়ে অর্থনৈতিক বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ১৯৪৮ সালে শ্রীলঙ্কার স্বাধীনতার দশকের পর এমন অর্থনৈতিক সংকটের মুখে পড়ার নজির এটাই প্রথম।

এদিকে শ্রীলঙ্কার বাজারে জ্বালানি তেল, গ্যাস ও বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধি এবং দেশব্যাপী বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্নকে কেন্দ্র করে ব্যাপক আন্দোলন শুরু হয়। তাতে দেশটির প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসের পদত্যাগের দাবি তোলে আন্দোলনকারীরা।