ইউক্রেনকে গোয়েন্দা তথ্য সরবরাহ করেছিল যুক্তরাষ্ট্র। আর ওই গোয়েন্দা তথ্যই ইউক্রেনকে চলমান যুদ্ধে রাশিয়ান অনেক জেনারেলকে লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত করে এবং হত্যা করতে সাহায্য করে। আমেরিকান জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তাদের বরাতে এমন একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে নিউ ইয়র্ক টাইমস।

কর্মকর্তাদের বরাদে ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, যুদ্ধ চলাকালীন ইউক্রেনকে যুদ্ধক্ষেত্রে রাশিয়ান জেনারেলদের টার্গেটে পরিণত করতে এই গোয়েন্দা সহায়তা বাইডেন প্রশাসনের গোপন প্রচেষ্টার অংশ।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রতিনিয়ত অবস্থান বদল করা রাশিয়ান সামরিক সদর দপ্তরের অবস্থান এবং এর সম্পর্কে অন্যান্য বিস্তারিত তথ্য যুক্তরাষ্ট্র সরবরাহ করেছে ইউক্রেনকে। যুক্তরাষ্ট্রের কাছ থেকে পাওয়া তথ্যের মধ্যে টেলিফোনে কথোপকথনে নজরদারি করে পাওয়া তথ্যও রয়েছে। পরে এসব তথ্য নিজেদের গোয়েন্দাদের অর্জিত তথ্যের সঙ্গে মিলিয়ে পর্যালোচনা করে ইউক্রেন, যা রাশিয়ান জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তাদের অবস্থান নিশ্চিতে দেশটিকে সাহায্য করে। এরপর ইউক্রেন রাশিয়ান জেনারেলদের ওপর হামলা এবং অন্যান্য আক্রমণ চালায়।

ইউক্রেনের কর্মকর্তারা বলেছেন, তারা ১২ রাশিয়ান জেনারেলকে হত্যা করেছেন। অনেক সামরিক বিশ্লেষকের মতে যা অনেক বেশি।