নিউ ইয়র্কের সানসেট পার্ক অঞ্চলের ৩৬ নম্বর স্ট্রিটের সাবওয়ে স্টেশনটিতে বন্দুকবাজের এলোপাথাড়ি গুলির ফলে আহত হয়েছেন কম পক্ষে ২৩ জন।

নিউ ইয়র্কের ব্রুকলিনের সাবওয়ে স্টেশনে হামলার ঘটনায় ফ্রাঙ্ক আর জেমস (৬২) নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। হামলার বেশ কিছুক্ষণ পরে স্টেশনের নিকটবর্তী ব্রুকলিন স্ট্রিটে সন্দেহজনক একটি ভ্যানের খোঁজ পাওয়া যায়। ওই ভ্যান থেকে একটি হ্যান্ডগান, প্রচুর গুলি, গ্যাসোলিন জাতীয় জ্বালানি ও ধারালো অস্ত্র উদ্ধার করা হয়। ধারণা করা হচ্ছে ওই ভ্যানে করেই এসেছিল আততায়ী। ভ্যানটির মালিকের খোঁজ করতে শুরু করায় উঠে আসে ফ্রাঙ্কের নাম। ফিলাডেলফিয়া থেকে ভ্যানটি ভাড়া করেছিল ফ্রাঙ্ক।

বুধবার নিউ ইয়র্কের মেয়র এরিক অ্যাডামস এক সাংবাদিক বৈঠকে বলেন, ‘নিউ ইয়র্কের বাসিন্দারা, আমরা ওকে ধরতে পেরেছি।’

নিউ ইয়র্ক পুলিশ জানিয়েছে, নিউ ইয়র্কের ইস্ট ভিলেজ থেকে ফ্রাঙ্ককে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতারের সময়ে কোনো গোলমাল হয়নি। তার বিরুদ্ধে সাবওয়ে স্টেশনে হামলায় জড়িত থাকার অভিযোগ আনা হবে। সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়া ফুটেজে ফ্রাঙ্কের মতো দেখতে এক ব্যক্তিকে হাতকড়া পরিয়ে গাড়িতে তুলতে দেখা গেছে পুলিশ অফিসারদের।

মঙ্গলবার সকালে নিউ ইয়র্কের ব্রুকলিন বরোর সানসেট পার্ক অঞ্চলের ৩৬ নম্বর স্ট্রিটের সাবওয়ে স্টেশনটিতে বন্দুকবাজের এলোপাথাড়ি গুলির ফলে আহত হয়েছেন কম পক্ষে ২৩ জন। তাদের মধ্যে ১০ জন গুলিবিদ্ধ। বাকিরা ধোঁয়া ও হুড়োহুড়িতে আহত হয়েছেন। ওই ১০ জনের মধ্যে পাঁচ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

গুলি চালানোর আগে আতঙ্ক সৃষ্টি করতে ওই দুষ্কৃতী স্মোক বম্ব ব্যবহার করেছিল বলেও জানা গেছে। একটি থেমে থাকা সাবওয়ে ট্রেনে উঠে তিনি গুলি চালাতে শুরু করেন। খবর পেয়ে সকাল সাড়ে আটটা নাগাদ ঘটনাস্থলে যান পুলিশ ও দমকল কর্মীরা।

জানা যায়, সকাল সাড়ে আটটার কিছু আগে ধূসর রঙের নির্মাণকর্মীর পোশাক ও গ্যাস মাস্ক পরিহিত এক মধ্যবয়স্ক ব্যক্তি স্টেশনে প্রবেশ করেন। তার
পরেই ঘটে হামলা। ঘটনার কিছু পরেই প্রকাশ্যে আসে সাবওয়ে স্টেশনের হামলার ভিডিও।

ভিড়িওতে দেখা যাচ্ছে, ধোঁয়ায় ঢেকে গিয়েছে সাবওয়ে স্টেশন। শোনা যাচ্ছে গুলির শব্দ। তার মধ্যে প্রাণ ভয়ে ছুটছেন ট্রেন থেকে বেরোনো যাত্রীরা।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার তদন্তের জন্য ট্রেন চলাচল বন্ধ করে দেয়া হলেও বুধবার তা আবার শুরু হয়েছে।

পুলিশ বলছে, ফ্রাঙ্কের বিষয়ে তল্লাশি চালিয়ে উঠে এসেছে বেশ কিছু চাঞ্চল্যকর তথ্য। ইউটিউবসহ একাধিক সমাজমাধ্যমে তিনি বেশ কিছু হিংসামূলক ভিডিয়ো পোস্ট করেছেন। সেই সাথে স্পষ্ট জানিয়েছেন প্রশাসনের, বিশেষ করে নিউ ইয়র্কের মেয়র এরিক অ্যাডামসের পরিচালন ব্যবস্থা নিয়ে তার অনাস্থার কথা।

ইউটিউবের নীতি ভাঙায় তার ‘পেজ’ সরিয়ে দেন ইউটিউব কর্তৃপক্ষ। তবে ফ্রাঙ্কের বোন ক্যাথরিন জেমস রবিনসনের মতে, ‘ফ্রাঙ্কের নাম সন্দেহভাজন হিসেবে উঠে আসায় আমি বিস্মিত। আমার মনে হয় না তিনি এমন কাজ করবে।’

ক্যাথরিন জানিয়েছেন, অনেক বছর ফ্রাঙ্কের সাথে তার যোগাযোগ নেই। তবে পুলিশের দেয়া একটি তথ্য ভুল বলে জানান তিনি।

পুলিশের দাবি, ফ্রাঙ্ক পাঁচ ফুট পাঁচ ইঞ্চি লম্বা। কিন্তু ক্যাথরিনের দাবি, তার ভাইয়ের উচ্চতা ৬ ফুটের বেশি।