অস্কারের মঞ্চে সপাটে চড় মেরেছিলেন কৌতুকাভিনেতা ক্রিস রককে। তারই খেসারত দিতে হলো অভিনেতা উইল স্মিথকে। ওই চড় মারার দায়ে তাকে ১০ বছরের জন্য অস্কার থেকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

‘অ্যাকাডেমি অব মোশন পিকচার আর্টস অ্যান্ড সায়েন্স’ অস্কার পুরস্কারের আয়োজন করে। স্মিথের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিয়ে আলোচনা করতে শুক্রবার বৈঠকে বসে তারা। ওই বৈঠকেই স্মিথের শাস্তির বিধান নির্ধারিত হয়। স্মিথ যদিও তার আচরণের জন্য আগেই ক্ষমা চেয়ে অ্যাকাডেমি থেকে পদত্যাগ করেন।

স্ত্রী জাডা পিঙ্কেটকে নিয়ে ‘রসিকতা’ মেনে নিতে না পেরে অস্কারের মঞ্চে ক্রিসকে চড় মেরেছিলেন স্মিথ। জাডাকে নিয়ে চটুল রসিকতার ‘শাস্তি’ হিসেবে মঞ্চে উঠে গিয়ে সঞ্চালক তথা কৌতুকাভিনেতা ক্রিসকে সপাটে একটি চড় মারেন। তার এই আচরণের জন্য ক্রিস এবং অস্কার কর্তৃপক্ষের কাছে পরে ক্ষমাও চান তিনি। তবে ক্ষমাপ্রার্থনা করেও রেহাই পেলেন না এ বছরের অস্কারজয়ী অভিনেতা। শাস্তিস্বরূপ তাঁর পুরস্কার কেড়ে নেয়া হতে পারে বলে জল্পনা তৈরি হয়। তবে স্মিথকে অস্কারের মঞ্চ থেকে নিষিদ্ধ করা হলেও কেড়ে নেয়া হয়নি তার পুরস্কার।

উল্লেখ্য, অ্যাকাডেমি বোর্ড অব গভর্নরের সদস্য অভিনেতা হুপি গোল্ডবার্গ আগেই জানিয়েছিলেন, চড়-কাণ্ডের ফল স্মিথকে ভুগতে হবে। ওই ঘটনার পর অ্যাকাডেমির বাইরে দু’টি বড় প্রযোজনা সংস্থা স্মিথের সাথে তাদের কাজ সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেয়।

তবে যাকে চড় মেরে বিতর্কের কেন্দ্রে চলে আসেন স্মিথ, সেই ক্রিস এখনো এই বিষয়ে কোনো প্রতিক্রিয়া দেননি।

Previous post লন্ডনে বাংলাদেশী শিক্ষিকা হত্যায় একজনের যাবজ্জীবন
Next post র‌্যাবের নিষেধাজ্ঞা আংশিকভাবে প্রত্যাহারের প্রস্তাব
Close