রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের প্রাপ্তবয়স্ক মেয়ে, পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভের আত্মীয় ও দেশটির বেশ কয়েকজন অভিজাত নাগরিকের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপের কথা জানিয়েছে হোয়াইট হাউস।

বুধবার এ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়। খবর বিবিসি, আল জাজিরা ও তাসের।

নতুন নিষেধাজ্ঞার মধ্যে রয়েছে— রাশিয়ায় নতুন করে বিনিয়োগে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। এ ছাড়া রাশিয়ার আলফা ব্যাংক ও এটির বৃহৎ আর্থিক প্রতিষ্ঠান সেবারব্যাংকের ওপর দেওয়া হয়েছে গুরুতর আর্থিক নিষেধাজ্ঞা। আলফা ব্যাংক দেশটির সর্ববৃহৎ বেসরকারি ব্যাংক। নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন উদ্যোগের ওপর। এ ছাড়া নিষেধাজ্ঞার আওতায় রয়েছেন সরকারের কর্মকর্তা ও তাদের পরিবারের সদস্যরা।

হোয়াইট হাউস জানায়, প্রেসিডেন্ট পুতিনের প্রাপ্তবয়স্ক মেয়ে, পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভের আত্মীয় এবং দেশটির নিরাপত্তা পরিষদের সদস্যরা এ নিষেধাজ্ঞার আওতায় থাকবে।

হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি জেন সাকি বলেন, রাশিয়ায় সব ধরনের নতুন বিনিয়োগ এ নিষেধাজ্ঞার আওতায় পড়বে। এ ছাড়া দেশটির আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও রাষ্ট্রীয় উদ্যোগ এর অন্তর্ভুক্ত হবে। এর বাইরে রাশিয়ার সরকারের কর্মকর্তা ও তাদের পরিবারের সদস্যদের ওপরও নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, এ সব পদক্ষেপ রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় ক্ষমতাকে খর্ব করবে।

‘ওয়াশিংটন প্রত্যাশা করে, এ সব নিষেধাজ্ঞা রাশিয়ার তীব্র ও তাৎক্ষণিক অর্থনৈতিক ক্ষতি করবে’, যোগ করেন জেন সাকি।