পাকিস্তানের জাতীয় পরিষদ ভেঙে দেওয়ার পর সোমবার সাধারণ মানুষের সঙ্গে একটি প্রশ্ন-উত্তর অনুষ্ঠানে অংশ নেন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

এই অনুষ্ঠানে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা বলেছেন ইমরান।

তাকে প্রশ্ন করা হয় তিনি আমেরিকার বিরোধী কি না? এমন প্রশ্নের জবাবে ইমরান খান বলেন, আমি কোনো দেশের বিরোধী না। আমি ভারত বা আমেরিকার বিরোধী না। কিন্তু তাদের নীতির বিরোধীতা করতে পারি। আমি তাদের সঙ্গে বন্ধুত্ব চাই এবং তারা এটিকে সম্মান করুক এটি চাই।

ইমরান খান আরও জানান, তিনি সেসব দেশের বিপক্ষে, যারা অন্য দেশের সার্বভৌমত্বে আঘাত করে এবং খবরদারি করে।

পাকিস্তানের বিরোধী দলের সদস্যদের সমালোচনা করেন ইমরান খান। তিনি দাবি করেন, বিদেশী সরকারের কথায় ওঠা-বসা করে বিরোধী দলগুলো।

ইমরান খান বলেন, বিরোধীরা বিদেশীদের ইয়েস ম্যান বা আজ্ঞাবহ হিসেবে কাজ করে।

এদিকে ৩ এপ্রিল পাকিস্তানের জাতীয় পরিষদ ভেঙে দেন পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট। এ বিষয়টি সঠিক বলেও মন্তব্য করেন ইমরান খান।

এখন বিরোধী দলগুলো জাতীয় পরিষদ ভেঙে দেওয়ার বিরোধীতা করে পাকিস্তানের সুপ্রিম কোর্টের দারস্থ হয়েছেন।

ইমরান খান দাবি করেন, জনগণকে ভয় পায় বলেই এখন নির্বাচনের প্রস্তুতি না নিয়ে আদালতে গিয়েছেন বিরোধী দলগুলোর সদস্যরা।

Previous post পুতিনকে ফের যুদ্ধাপরাধী বললেন বাইডেন
Next post লস এঞ্জেলেসে স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসে আলোকচিত্র প্রদর্শনী
Close