চলমান ইউক্রেন সংকট তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধে রূপ নিতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। যুক্তরাষ্ট্রের সাউথ ক্যারোলিনার ফ্লোরেন্সে রিপাবলিক পার্টির সমর্থকদের উদ্দেশ্যে ভাষণ দেওয়ার সময় এই আশঙ্কা প্রকাশ করেন ট্রাম্প।

সাবেক এই মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, ইউক্রেনে রাশিয়ার যুদ্ধ সম্ভাব্য তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের দিকে ধাবিত হতে পারে। শ্রদ্ধাবোধের অভাবের কারণে ইউক্রেন আক্রমণ করেছেন ভ্লাদিমির পুতিন।

এদিকে ইউক্রেন যুদ্ধ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের বর্তমান প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রতিক্রিয়ারও সমালোচনা করেছেন তিনি। খবর ডেইলি সাবাহ ও দ্য ইন্ডিপেনডেন্টের।

ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, ‘এটি তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের দিকে যেতে পারে। আমি দেখছি কী ঘটছে। কারণ আপনি যদি মনে করেন পুতিন থেমে যাবেন, তাহলে এই পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে যাচ্ছে। পুতিন থামবেন না। আর তাঁর সঙ্গে কথা বলার মতো আমাদের কেউ নেই। রাশিয়ার বিরুদ্ধে এখন পর্যন্ত আমার মতো কেউ কঠোর হয়নি।’

ট্রাম্প বলেন, ইউক্রেনে যুদ্ধের একটি বড় কারণ হলো যুদ্ধের প্রতি পুতিনের আত্মত্যাগ।

তিনি আরো বলেন, ‘পূর্ব ইউরোপের সহিংস সংঘাতের সব আলোচনার জন্য এটি এক ভয়াবহ সংকট। আমরা সাহায্য করতে যাচ্ছি এবং আমরা যা করতে পারি তাই করছি। কারণ রক্তপাতের দিকে কেউ আর বেশিক্ষণ তাকিয়ে থাকতে পারেন না… সেখানে যা ঘটছে, সেটি অনেক মানুষের প্রতি শ্রদ্ধার অভাব এবং আরও অনেক কিছু।’

রাশিয়ার বিরোধিতায় ইউক্রেনকে সহায়তা করার জন্য দেশটিতে কীভাবে ট্যাংক-বিধ্বংসী জ্যাভেলিন ক্ষেপণাস্ত্র পাঠিয়েছিলেন সে বিষয়েও কথা বলেছেন ট্রাম্প। তিনি বলেন, ওবামা-বাইডেনকে মনে আছে? তারা কম্বল পাঠিয়েছে। আমি জ্যাভেলিন পাঠিয়েছিলাম। জ্যাভেলিন কী তা আপনারা জানেন; ট্যাংক-বিধ্বংসী অস্ত্র।