খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে এবং কৃষিখাতে প্রযুক্তির ব্যবহার ও গবেষণা বাড়াতে এশিয়ার দেশগুলোকে একসঙ্গে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। একই সঙ্গে কৃষিখাতে অর্থায়ন ও সহযোগিতার জন্য বিশেষ তহবিল গঠনেরও প্রস্তাব দিয়েছেন তিনি।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে আরব আমিরাতের আবুধাবি থেকে ঢাকায় অনুষ্ঠিত জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের ৩৬তম আঞ্চলিক সম্মেলনে ভার্চুয়ালি যোগ দিয়ে এ আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।

এশিয়া ও প্যাসিফিক অঞ্চলে খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতের আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমি এ অঞ্চলের দেশগুলোর মধ্যে কৃষি গবেষণা ও শিক্ষাখাতে আরও বেশি করে একযোগে কাজ করার আহ্বান জানাই।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘জৈবপ্রযুক্তি, ন্যানোটেকনোলজি ও রোবোটিকস ও কৃষি খাতে অত্যাধুনিক প্রযুক্তি স্থানান্তর করা হয়েছে, যাতে জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থাভুক্ত এ অঞ্চলের দেশগুলোর মধ্যে সহযোগিতা শক্তিশালী হয়।’

গত সোমবার সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পাঁচ দিনের সরকারি সফরে সংযুক্ত আরব আমিরাতে (ইউএই) পৌঁছেছেন। আবুধাবি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রীকে অভ্যর্থনা জানান সেখানে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো. আবু জাফর। দেওয়া হয় লাল গালিচা সংবর্ধনা এবং গার্ড অব অনার।

প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী হিসেবে রয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন, বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী ইমরান আহমদ, প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগবিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান এবং মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চল সংক্রান্ত এফএও আঞ্চলিক সম্মেলনে যোগ দেন প্রধানমন্ত্রী। সেখানে তিনি কৃষিতে প্রযুক্তির ব্যবহার ও গবেষণা বাড়াতে এশিয়ার দেশগুলোকে একসঙ্গে কাজ করার আহ্বান জানান।

প্রধানমন্ত্রীর সফরের শেষ দিন আগামীকাল শুক্রবার প্রবাসী বাংলাদেশিরা আয়োজিত একটি নাগরিক সংবর্ধনায় যোগ দেওয়ার কথা। এ ছাড়া তিনি রাস আল খাইমায় বাংলাদেশ ইংলিশ প্রাইভেট স্কুল অ্যান্ড কলেজের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করবেন।