তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ শুরু হলে তা হবে ধ্বংসাত্মক। এতে পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহৃত হবে বলে মন্তব্য করেছেন রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ। গত বৃহস্পতিবার থেকে ইউক্রেনে আগ্রাসন চালানোর জন্য যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপের দেশগুলো সুইফট নিষেধাজ্ঞাসহ একের পর এক নিষেধাজ্ঞা দিয়ে আসছে। বুধবার এসব নিষেধাজ্ঞার বিষয়ে কথা বলতে গিয়ে তিনি এ কথা বলেন।

রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ইউক্রেন পারমাণবিক অস্ত্রধারী হলে তা হবে রাশিয়ার জন্য বিপদের কারণ। আর সেই কারণে গত ২৪ ফেব্রুয়ারি প্রেসিডেন্ট পুতিনের নির্দেশে দেশটিতে বিশেষ সামরিক অভিযান শুরু হয়েছে। খবর এনডিটিভির।

গত সপ্তাহে পুতিনকে শায়েস্তা করতে নিষেধাজ্ঞার একমাত্র বিকল্প ‘তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের সূচনা’ বলে যুক্তি দেখান। ইতোমধ্যে পশ্চিমা বিশ্ব রাশিয়ার একাধিক ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। এছাড়া অনেক পশ্চিমা দেশ ইতোমধ্যেই রাশিয়ার জন্য তাদের আকাশসীমা বন্ধ করে দিয়েছে।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি থেকে ইউক্রেনে সপ্তাহব্যাপী রুশ আগ্রাসন চলছে। জাতিসংঘের এক হিসাবে দেশটিতে এ পর্যন্ত ১৩ শিশুসহ ১৩৬ জন নিহত হয়েছে। তবে ইউক্রেন সরকার দাবি করছে হামলায় এ পর্যন্ত ৩৫২ জন নিহত হয়েছে।

Previous post ৫০০ বাংলাদেশি ইউক্রেন ছেড়েছেন, ৬০ জন দেশে ফিরতে চান
Next post জাতীয় স্লোগান ‘জয় বাংলা’, প্রজ্ঞাপন জারি
Close