সুষ্ঠু নির্বাচনের পরিবেশ তৈরির লক্ষ্যে দুই বছরের জন্য জাতীয় সরকার চান গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘আমি এক বছর আগের থেকে বলছি’ অন্তত দুই বছরের জন্য জাতীয় সরকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে। জাতীয় সরকার প্রতিষ্ঠিত না হলে এ দেশে কোনোক্রমেই গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে আনা যাবে না। কোনোক্রমেই সুষ্ঠু নির্বাচন হবে না।

বুধবার বিকেলে জাতীয় প্রেস ক্লাবে স্বাধীনতার পতাকা উত্তোলনের ৫২তম বছর উদযাপন উপলক্ষে ‘বাঙালির তৃতীয় জাগরণের মাইলফলক’ শীর্ষক আলোচনাসভায় তিনি এ কথা বলেন। বিএনপি নেতৃত্বাধীন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শরিক জেএসডি সভার আয়োজন করে।

জাফরুল্লাহ বলেন, ‘জাতীয় সরকারের সবচেয়ে বড় সুবিধা হলো আওয়ামী লীগ। সেই সরকারে আওয়ামী লীগের প্রতিনিধিও থাকবেন। হয়তো প্রতিনিধি শেখ রেহানাও হতে পারেন। আমি জানি না, সেটা আওয়ামী লীগের ব্যাপার। ‘

অনুষ্ঠানে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার কথা থাকলেও অসুস্থতার জন্য তিনি আসতে পারেননি বলে বিএনপির পক্ষ থেকে জানানো হয়।

জানা গেছে, বিএনপির শীর্ষ নেতৃত্ব নিয়ে একের পর এক সমালোচনামূলক বক্তব্য এবং সম্প্রতি সিইসি গঠন নিয়ে ডা. জাফরুল্লাহর মন্তব্যে চরমভাবে ক্ষুব্ধ হয়েছে বিএনপি। বেশ কিছুদিন ধরে বিএনপির কোনো কর্মসূচিতে তাঁকে আমন্ত্রণ না জানানো হচ্ছিল না। এবার তিনি অতিথি থাকবেন এমন অনুষ্ঠানেও না যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন দলের নেতাকর্মীরা।

Previous post জাতীয় স্লোগান ‘জয় বাংলা’, প্রজ্ঞাপন জারি
Next post পুতিনের বিরুদ্ধে কারাগার থেকে আন্দোলনের ডাক নাভালনির
Close