সৌদি আরবে সড়ক দুর্ঘটনায় এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। রোববার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। নিহতের পরিবার তার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার বিকেলে সৌদি আরবের রিয়াদ এলাকায় একটি মালবাহী ট্রাক নিয়ন্ত্রণ হারালে আহত হন ওই যুবক। পরে তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে গতকাল তিনি মারা যান।

নিহত ওই যুবকের নাম মিজানুর রহমান (হারিছ)। তার বাড়ি কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া উপজেলার চন্ডিপাশা ইউনিয়নের ঘাগড়া গ্রামে। তিনি সরদার বাড়ির সাহাব উদ্দিনের ছেলে। সৌদি আরবে রিয়াদে একটি বলুদিয়া কোম্পানিতে চাকরি করতেন মিজানুর রহমান। তার দুই ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে।

মিজানুর রহমানের ভাই ফরিদ জানান, সাত বছর আগে তার ভাই সৌদি আরবে যান। সেখানে তিনি রিয়াদে বসবাস করতেন। গত বৃহস্পতিবার সকালে তিনি কাজে যান। কাজ শেষে সৌদি সময় বিকেল ৪টার দিকে মালবাহী ট্রাকে করে বাসায় ফিরছিলেন মিজানুর। এ সময় রাস্তায় ট্রাকটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে উল্টে যায়। এতে গুরুতর আহত হন তিনি। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে গতকাল রোববার চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

মিজানুর রহমানের বাবা সাহাব উদ্দিন বলেন, ‘৭ বছর আগে আমার ছেলেকে সৌদি আরবের রিয়াদে পাঠিয়েছি। এখন সে নাই, এ কথা ভাবতেই পারি না। দূর দেশে সে মারা গেছে, আমরা তার লাশটা কি পাবো?’

Previous post ৫ হাজার বাংলাদেশিকে ভিসা দেবে রোমানিয়া
Next post বিচারকের ওপর হামলার ঘটনায় প্রবাসী আটক
Close