ঢাকায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল আর মিলার তার দায়িত্ব পালন শেষে নিজ দেশে ফিরে গেছেন। তিন বছরের বেশি সময় দায়িত্ব পালনের পর শুক্রবার তিনি ঢাকা ছাড়েন।

বিদায়ের আগে মার্কিন দূত বাংলাদেশ সম্পর্কে তার অভিব্যক্তি জানিয়েছেন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। ঢাকাস্থ মা‌র্কিন দূতাবাসের ফেসবুকে মিলার লিখেন- ‘আমার সবচেয়ে প্রিয় স্মৃতি হয়ে থাকবে বাংলাদেশের জনগণের উষ্ণতা ও সৌজন্য। আমেরিকান কূটনীতিক হিসেবে গত ৩৫ বছরে আমি এমন কোনো দেশে কখনও কাজ করিনি যেখানকার মানুষেরা এত অতিথিপরায়ণ, চিন্তাশীল ও অমায়িক।’

মিলার বলেন, ‘রিকশার রঙ আর চালকদের মুখের কথা মনে পড়ে যাবে। পুরান ঢাকার ছাদ আর ঘুড়ি কিংবা সন্ধ্যার আকাশে পাখির উড়ে যাওয়া মনে পড়বে। আমি দেখেছি, স্কুল ইউনিফর্ম পরা শিশুরা গ্রামের রাস্তায় হেঁটে বাড়ি যাচ্ছে। এছাড়া জাহাজ ভর্তি চট্টগ্রামের নদী, কক্সবাজারে পৃথিবীর সবচেয়ে সুন্দর নৌকা, সিলেটের গাঢ় সবুজ পাহাড়, বরিশালের উদ্দাম সবুজ, বান্দরবানের পাহাড় ও সুন্দরবনের ম্যানগ্রোভে সকালের কুয়াশা সবই অনবদ্য।’

২০১৮ সালের ১৮ নভেম্বর বাংলাদেশে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত হিসেবে যোগ দেন এই কূটনীতিক। তিন বছরের বেশি সময় দায়িত্ব পালন শেষে তিনি ফিরে গেলেন। তবে করোনা পরিস্থিতির কারণে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ পান‌নি মা‌র্কিন রাষ্ট্রদূত।

Previous post ‘যুক্তরাষ্ট্রে বছরে এক লাখ নিখোঁজ হয়, সে দায় কে নেবে’
Next post মালয়েশিয়ায় শ্রমিক পাঠাতে এজেন্সি নির্বাচনে স্বচ্ছতা চায় বাংলাদেশ
Close