লেবাননে দীর্ঘমেয়াদী অর্থনৈতিক সংকটের কারণে প্রবাসী বাংলাদেশিরা সীমাহীন কষ্টে আছে। তাদের অধিকাংশের খাদ্য, ওষুধ, চিকিৎসা ব্যয় মেটানো কঠিন হয়ে পড়েছে। এই পরিস্থিতিতে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা ও ওষুধ পেয়েছে ৪ শতাধিক প্রবাসী বাংলাদেশি।

লেবাননের জল সীমানায় জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা বাহিনীতে নিযুক্ত বাংলাদেশ নৌবাহিনী ও বৈরুত দূতাবাস যৌথভাবে এই চিকিৎসা সেবা প্রদান করে।

রবিবার বৈরুতের আল ক্লাসিকো স্টেডিয়ামে এই চিকিৎসা সেবার উদ্বোধন করেন দেশটিতে নিযুক্ত বাংলাদেশ দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত মেজর জেনারেল জাহাঙ্গীর আল মুস্তাহিদুর রহমান।

এসময় উপস্থিত ছিলেন লেবানন ইউনিফিলে যুক্ত বানৌজা সংগ্রাম’র ক্যাপ্টেন এম জাহিদ হোসেন ও বাংলাদেশ দূতাবাসের প্রথম সচিব আবদুল্লাহ আল মামুন। সকাল ৯টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত লেবানন ইউনিফিল-এ নিয়োজিত বাংলাদেশ নৌবাহিনীর মেডিকেল টিম এই সেবা প্রদান করে।

রাষ্ট্রদূত মেজর জেনারেল জাহাঙ্গীর আল মুস্তাহিদুর রহমান বাংলাদেশ নৌবাহিনীকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, বাংলাদেশিরা এখানে অনেক কষ্টে আছে।

তাদের স্বার্থে আমরা নিয়মিত এই ক্যাম্পের আয়োজন করব। তিনি সকল বাংলাদেশি প্রবাসীদের ভ্যাকসিন নিতে অনুরোধ জানান।
ক্যাপ্টেন এম জাহিদ হোসেন বলেন, প্রতি ২ মাসে আমরা অন্তত একবার হলেও সাধারণ প্রবাসীদের এই সেবা প্রদান করব। আমাদের কাছে পর্যাপ্ত পরিমাণে ওষুধ মজুদ রয়েছে।

সার্জন লেফটেন্যান্ট সাইয়েদ গালিব বলেন, লেবাননে চিকিৎসা সেবা খুবই ব্যয়বহুল। তাই লেবানন প্রবাসী বাংলাদেশিদের চিকিৎসা সেবা দিতে আমরা তাদের পাশে দাঁড়িয়েছি।

শারীরিক অসুস্থতা নিয়ে চিকিৎসা সেবা নিতে আসা বাংলাদেশিরা দূতাবাস ও বাংলাদেশ নৌবাহিনীর মেডিকেল টিমের এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, লেবাননের সংকটময় মুহূর্তে এই সেবা আমাদের জন্য খুবই উপকারী।

উল্লেখ্য, লেবাননে অর্থনৈতিক সংকটের কারণে স্বাস্থ্যখাতে সৃষ্টি হয়েছে অচলাবস্থা। অর্থ দিয়েও ফার্মেসিগুলোতে চাহিদা মতো প্রয়োজনীয় ওষুধ পাচ্ছে না বাংলাদেশিরা।

Previous post রোহিঙ্গা ইস্যু: রাজনৈতিক নিষ্পত্তিতে যুক্তরাষ্ট্রের সমর্থন চাইলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী
Next post বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব লস এঞ্জেলেসের পুনর্জাগরণের উদ্যোগ
Close