সাবেক প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসানের বিরুদ্ধে নির্যাতন ও প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগে রাজধানীর ধানমন্ডি থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন তার স্ত্রী ডা. জাহানারা এহসান।

বৃহস্পতিবার বিকালে জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ এ ফোন করে পুলিশের সহযোগিতা চান ডা. জাহানারা। এরপর বিষয়টি জানানো হয় ধানমন্ডি থানা পুলিশকে। এরপরই পুলিশের একটি টিম মুরাদের বাসায় যায়। পরে পুলিশের সঙ্গে তিনি থানায় এসে জিডি করেন।

মুরাদের স্ত্রী জিডিতে উল্লেখ করেন, ১৯ বছরের দাম্পত্য জীবনে তাদের ফারিহা রাজকন্যা (১৬) এবং হাসান আবরার মাহির যুবরাজ (১১) নামে দুই সন্তান রয়েছে। তার স্বামী ডা. মুরাদ হাসান বর্তমান সরকারের সংসদ সদস্য এবং সাবেক প্রতিমন্ত্রী। সম্প্রতি কারণে অকারণে ডা. মুরাদ তাকে ও তার সন্তানদের অকথ্য ভাষায় গালিগালাজসহ শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করছে। পাশাপাশি হত্যার হুমকিও দিচ্ছে তার স্বামী।
তিনি জানান, বৃহস্পতিবার বেলা পৌনে ৩টার দিকে ডা. মুরাদ আবারও তাদেরকে গালিগালাজ করে এবং মারধর করার চেষ্টা করে। পরে ৯৯৯ এ ফোন দিলে ধানমন্ডি থানার পুলিশ বাসায় পৌঁছায়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে বাসা থেকে বেরিয়ে যান তার স্বামী।

ডা. জাহানারা জানান, সন্তানদের নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন তিনি। তার স্বামী যে কোনো মুহূর্তে তাকেসহ তার সন্তানদের ক্ষতি করে ফেলতে পারে।

ধানমন্ডি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইকরাম আলী মিয়া গণমাধ্যমকে বলেন, ৯৯৯ থেকে কল পেয়ে সাবেক প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসানের ১৫ নম্বর সড়কের বাসায় পুলিশ পাঠানো হয়। স্বামীর বিরুদ্ধে নির্যাতন ও প্রাণ নাশের হুমকির অভিযোগ আনেন তিনি।