২০২৪ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান পার্টির সম্ভাব্য প্রার্থীদের মধ্যে পরিচালিত জরিপে ডোনাল্ড ট্রাম্প সবার শীর্ষে অবস্থান করছেন। জরিপে ফ্লোরিডা স্টেটের গভর্ণর রোন ডিসান্টিসের চেয়ে ট্রাম্পের অবস্থান ৪৩% পয়েন্ট বেশি। অর্থাৎ ট্রাম্পকে যোগ্য হিসেবে মনে করেছেন ৫৪% রিপাবলিকান ভোটার।

অপরদিকে, ডিসান্টিসকে যোগ্য মনে করেছেন মাত্র ১১% ভোটার। ট্রাম্পের ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্সকে সাপোর্ট করেছেন ৮% রিপাবলিকান ভোটার। ডিসেম্বরের ১৩ থেকে ১৭ তারিখের মধ্যে পরিচালিত এ জরিপের ফলাফল প্রকাশ করা হয়েছে রোববারের গণমাধ্যমে। জরিপ চালিয়েছে রয়টার্স/এলপিএসওস।

উল্লেখ্য, নির্বাচনে ট্রাম্প প্রার্থী হতে রিপাবলিকান প্রাইমারিতে অবতীর্ণ হবেন বলে এখনও তিনি জানাননি। তবে ট্রাম্প সর্বশেষ এক মন্তব্যে উল্লেখ করেছেন, ‘বিষয়টি নিয়ে আমি ভাবছি।’ ট্রাম্প বলেছেন, ‘আমি মনে করছি আমার প্রার্থীতা ঘোষণার পর অনেকে খুশী হবেন। তবে সেটি আমি নিশ্চিত করতে পারবো সামনের নভেম্বরে মধ্যবর্তী নির্বাচনের পর।’
পরিচালিত ওই জরিপে ৪% রিপাবলিকানের সাপোর্ট পেয়ে চতুর্থ স্থানে রয়েছেন ট্রাম্প আমলে জাতিসংঘে যুক্তরাষ্ট্রের স্থায়ী প্রতিনিধি নিকি হ্যালি। টেক্সাসের রিপাবলিকান সিনেটর টেড ক্রুজকে ৩% এবং টেক্সাসের গভর্ণর গ্রেগ এ্যাবোটকে সাপোর্ট দিয়েছেন মাত্র ২% ভোটার। সম্ভাব্য প্রার্থীর মধ্যে ঐ জরিপে মাত্র ১% রিপাবলিকানের সাপোর্ট পেয়েছেন সাবেক পররাষ্ট্র মন্ত্রী মাইক পম্পেও এবং মিজৌরির সিনেটর যোস হাউলে।

জরিপে অংশগ্রহণকারীদের ১৪% কোন প্রার্থীকেই সাপোর্ট দেননি। অপরদিকে, ডেমক্র্যাটিক পার্টির ভোটারের মধ্যে সম্ভাব্য প্রেসিডেন্ট প্রার্থীর জনপ্রিয়তা নিয়ে পরিচালিত অপর জরিপে ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসকে অধিক যোগ্য হিসেবে মনে করেছেন ৯৬% ভোটার। ৭৬% সাপোর্ট করেছেন পরিবহন মন্ত্রী পিটে বুটিগীগকে। বাইডেন আর ট্রাম্পের মধ্যে কে ভালো সে প্রসঙ্গে উভয় পার্টির ভোটারের মধ্যে পরিচালিত জরিপে ৫২% বাইডেনকে এবং ৪৪% ট্রাম্পকে সাপোর্ট করেছেন। ৫৬% ট্রাম্পকে কোনভাবেই পছন্দের তালিকায় রাখেনি।

অপরদিকে, বাইডেনকে এখনও ভালো মনে করেছেন ৪৮% ভোটার। জাতীয়ভিত্তিক এ জরিপে ৪৪০৭ ভোটার অংশ নেন।