প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৬ দিনের সফরে মালদ্বীপ গেছেন। বুধবার স্থানীয় সময় বিকেল ৩টার দিকে তিনি মালদ্বীপের রাজধানী মালের নিকটবর্তী ভেলানা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছান। সেখানে তাঁকে স্বাগত জানান দেশটির পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আহমেদ খলিল।

বুধবার (২২ ডিসেম্বর) মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট অফিস এক টুইট বার্তায় এ তথ্য জানিয়েছে।

টুইটে প্রেসিডেন্ট অফিস জানায়, রাষ্ট্রীয় সফরে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী মালদ্বীপে পৌঁছেছেন।

এর আগে দুপুর সোয়া ১২টার দিকে সফর সঙ্গীদের নিয়ে বাংলাদেশ বিমানের বিশেষ ফ্লাইটে মালদ্বীপের উদ্দেশে ঢাকা ছাড়েন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের প্রেস উইং থেকে পাওয়া কর্মসূচি অনুযায়ী আগামীকাল ২৩ ডিসেম্বর সকাল সাড়ে ১০টায় মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম মোহামেদ সলিহ আনুষ্ঠানিকভাবে প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাবেন। সেখানে প্রধানমন্ত্রীকে গার্ড অব অনার দেওয়া হবে।

গার্ড অব অনার নেওয়ার পর প্রধানমন্ত্রী প্রেসিডেন্সিয়াল প্রাসাদে যাবেন। এ ভেন্যুতে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে মালদ্বীপের প্রেসিডেন্টের দ্বিপাক্ষিক বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। বৈঠক শেষে দুই দেশের মধ্যে চারটি এমওইউ স্বাক্ষরিত হওয়ার কথা রয়েছে।

একই দিন (২৩ ডিসেম্বর) রাতে মালদ্বীপের রাষ্ট্রপতি আয়োজিত রাষ্ট্রীয় নৈশভোজে যোগ দেবেন প্রধানমন্ত্রী।

সফরে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে মালদ্বীপের ভাইস প্রেসিডেন্ট, স্পিকার ও প্রধান বিচারপতি সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন। এই সফরে প্রধানমন্ত্রী মালদ্বীপের জাতীয় পার্লামেন্টেও বক্তব্য রাখবেন বলে আশা করা হচ্ছে। মালদ্বীপে কর্মরত প্রবাসী বাংলাদেশিদের সঙ্গেও প্রধানমন্ত্রী ভার্চুয়ালি কুশল বিনিময় করবেন।

সফরের তৃতীয় দিন শুক্রবার (২৪ ডিসেম্বর) প্রবাসীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যোগ দেবেন প্রধানমন্ত্রী।

আগামী ২৭ ডিসেম্বর (সোমবার) সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রীর দেশে ফেরার কথা রয়েছে।

২৫ ও ২৬ ডিসেম্বরের কর্মসূচির বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের পক্ষ থেকে কিছু জানানো হয়নি। রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা বাসসও তাদের প্রতিবেদনে এ ব্যাপারে কিছু উল্লেখ করেনি।

Previous post নির্বাচন বানচাল করতে সংলাপকে নাটক বলছে বিএনপি
Next post আ.লীগ স্বাধীনতাবিরোধী শক্তিতে পরিণত হয়েছে : মির্জা ফখরুল
Close