সাইফুর রহমান ওসমানী জিতু
২০২১ সালের ‘জেসমিন খান পুরস্কার’ প্রাপ্তদের চুড়ান্ত নামের তালিকা ঘোষণা করা হয়েছে।

গত ২১ নভেম্বর রোববার সন্ধ্যায় লেখিকা জেসমিন খান স্মরণে লস এঞ্জেলেস শহর সংলগ্ন নর্থ হলিউডে ‘বলিউড ইন্ডিয়ান রেস্টুরেন্টে’ স্হাণীয় গণমাধ্যম প্রতিনিধিদের উপস্হিতিতে ‘জেসমিন খান ফাউন্ডেশন’ আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ নাম ঘোষণা করা হয়।

অনুষ্ঠানে আসন্ন বাংলার বিজয় বহর ২০২১-র কার্যকরী পরিষদের কর্মকর্তারা ছাড়াও স্হানীয় ও বাংলাদেশের সংবাদ মাধ্যমের প্রতিনিধিরা উপস্হিত ছিলেন।

লস এঞ্জেলেস শহরের জনপ্রিয় উপস্হাপক মিঠুন চৌধুরী ও উপস্হাপিকা সাজিয়া হক মিমির চমৎকার অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ‘জেসমিন খান ফাউন্ডেশন’ আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে জুড়ি বোর্ডের সদস্যদের উপস্থিতিতে ২০২১ সালের ‘জেসমিন খান পুরস্কার’ প্রাপ্তদের চুড়ান্ত নামের তালিকা ঘোষণা করা হয়। বিজয় বহরের কার্যকরী পরিষদের উর্ধতন সদস্য ছাড়াও লস এঞ্জেলেস শহরের গণ্যমান্য সমাজকর্মী, সংগঠক, অনুষ্ঠান আয়োজক, শিল্পী, সাহিত্যিক, সাংবাদিকসহ বিভিন্ন পেশার প্রবাসী প্রতিনিধিরাও উপস্হিত ছিলেন। সাংবাদিকদের প্রশ্নত্তর পর্বে আসন্ন বিজয় বহরের একটি সংক্ষিপ্ত রুপরেখা বিভিন্ন বক্তারা উপস্হাপন করেন।

প্রতি বছরের মত এবারও তারই ধারাবাহিকতায় আসন্ন ১৯শে ডিসেম্বর, ২০২১ বাংলার বিজয় বহর আয়োজিত বাৎসরিক মোটর শোভাযাত্রা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। ২০২০ সালে যুক্তরাষ্ট্রে ভয়াবহ কোভিড মহামারী আক্রান্তের কারণে বাংলার বিজয় বহরের সকল কার্যক্রম স্হগিত ঘোষণা করা হয়। সমাজে বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য এবার ৫ জন বিশিস্ট গুণীজনকে ‘জেসমিন খান ফাউন্ডেশন পুরস্কার ২০২১’ পদক দেবার নাম ঘোষণা করা হয়। জেসমিন খান ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান মোসলেম খানের সভাপতিত্বে ৭ সদস্য বিশিস্ট জূরী বোর্ডের সর্ব সম্মতিক্রমে বেশ কিছু মনোনীত প্রার্থীদের মধ্য থেকে ‘জেসমিন খান ফাউন্ডেশন সম্মাননা পদক ২০২১’র প্রাপ্ত ৫ জন চুড়ান্ত বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয়।

জেসমিন খান ফাউন্ডেশন আয়োজিত সম্মাননা পুরস্কারের জন্য মনোনয়ন জূরী বোর্ডের সদস্যদের মধ্যে উপস্হিত ছিলেন: জেসমিন খান ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান জনাব মোসলেম খান, বাংলার বিজয় বহরের চেয়ারম্যান আবদুল বাসেত, ভয়েস অফ আমেরিকার লস এন্জেলেস প্রাক্তন সংবাদদাতা এবং এইচডি বাংলা’ অনলাইন টেলিভিশন চ্যানেলের সভাপতি ও প্রধান কার্য্যনির্বাহী কর্মকর্তা সাংবাদিক সাইফুর রহমান ওসমানী জিতু, বিশিষ্ট লেখক, চলচ্চিত্র নির্মাতা ও সংগঠক ইসমাইল হোসেন, বিশিষ্ট সামাজিক ব্যক্তিত্ব আব্দুল রাজ্জাক, বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ও কন্ঠশিল্পী উর্মি আতাহার এবং লেখক ও সংগঠক সুমন বড়ুয়া।

জেসমিন খান ফাউন্ডেশন জুরী বোর্ডের এক বিশেষ সংক্ষিপ্ত সভায় সাইফুর রহমান ওসমানী জিতুর উপস্থাপিত ‘মরনোত্তর পুরস্কার’ সংযোজনের একটি নতুন প্রস্তাব অনুমোদনের জন্য তিনি জূরী বোর্ডের কাছে বিবেচনার অনুরোধ জানান। জূরী বোর্ডের সদস্যদের সংক্ষিপ্ত আলোচনার পরিপ্রেক্ষিতে আনীত সম্মতি প্রস্তাবে জূরী বোর্ডের পূর্ণাঙ্গ কমিটি এবং জেসমিন খান ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান জনাব মোসলেম খান ‘মরনোত্তর পুরস্কার’ নতুন সংযোজনের প্রস্তাবের পক্ষে সমর্থন ও অনুমোদন দেন। প্রতি বছর এখন থেকে জেসমিন খান সম্মাননা পুরস্কারের পাশাপাশি নতুন সংযোজন হিসাবে সমাজে অসাধারণ অবদান রাখার স্বীকৃতি হিসাবে একজন করে নির্বাচিত ‘মরনোত্তর পুরস্কার’ তাদের পরিবারের সদস্যদের হাতে ‘জেসমিন খান মরনোত্তর পুরস্কার’ তুলে দেয়া হবে।

এবারের ২০২১ সালের অনুষ্ঠিতব্য ‘জেসমিন খান সম্মাননা পুরস্কার’ মনোনীত বিজয়ীদের মধ্যে রয়েছেন: ‘বিস্ময় বালক’ এবং ‘গ্লোবাল লিডিং প্রফেসর’ নামে পরিচিত, এ যুগের আইনস্টাইন, বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত বিশ্বের সবচেয়ে কমবয়সী অধ্যাপক সুবর্ণ আইজ্যাক বারী। এছাড়াও, অধ্যাপক সুবর্ণ আইজ্যাক বারী ২০২১ এ বাংলার বিজয় বহরের প্রধান অতিথি হিসাবে অংশ নিচ্ছেন।

বৃহত্তর লস এন্জেলেস শহরে সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতির জন্য অধ্যাপক সুবর্ণ আইজ্যাক বারী ছাড়াও অপর পাঁচ জন ‘জেসমিন খান সম্মাননা পুরস্কার ২০২১’ পদকপ্রাপ্তদের মধ্যে রয়েছেন: জনাব মুজিব সিদ্দিকী ( সমাজ সেবক ও পাইওনিয়র অব লিটিল বাংলাদেশ মিচুয়াল আনডারসটাডিং), জনাব কাজী মশহুরুল হুদা় ( মুকাভিনেতা, সাংবাদিক এবং লস এনজেলেস লিটিল বাংলাদেশ বিউটিফিকেশনপ্রজেক্ট, সমাজ সেবক), জনাব মিঠুন চৌধুরী ( উপস্হাপক এবং অনু্ষ্ঠান সংগঠক) এবং এবছর প্রথমবারের মতো প্রথম ‘মরণোত্তর পুরস্কার’ পেতে যাচ্ছেন লস এন্জেলেস শহরের অত্যন্ত শ্রদ্ধাভাজন সমাজকর্মী প্রয়াত মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ খান ।

এখানে উল্লেখ করা যেতে পারে, বিশিস্ট সমাজকর্মী প্রয়াত শহীদউল্লাহ খান ৮০-র দশকে লস এন্জেলেস প্রবাসী বাংলাদেশী সম্প্রদায়ের বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের প্রবক্তা ও বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব লস এন্জেলেস (বালা)’র প্রতিষ্ঠাতা, পথিকৃত ও রুপকার।

বিগত বছরগুলোতে বাংলার বিজয় বহর আয়োজিত জেসমিন খান পুরস্কার প্রাপ্তদের মধ্যে ছিলেন-
২০১৮ সালে :
কাজী জহিরুল ইসলাম -কবি
এম ইসলাম মাসুদ- লেখক
সাইফুর রহমান ওসমানী জিতু- গনমাধ্যম
তপন দেবনাথ- লেখক

২০১৯ সালে :
কাইরান কাজী- বিস্ময় বালক
চমক হাসান- অংকবিশারদ
মাহবুব হাসান- কবি
রাশেদ রউফ- ছড়াকার ও একুশে পদক প্রাপ্ত

২০২০ : কোভিড মহামারীর কারনে অনুষ্ঠান স্হগিত

 

২০২১
অধ্যাপক সুবর্ন আইজাক বারী (৯ বছর বয়স) : এ যুগের আইনেস্টাইন।
শহিদুল্লাহ খান (মরনোত্তর): বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব লস এঞ্জেলেস (বালা)-র প্রতিষ্ঠাতা ও সমাজসেবক।
মুজিব সিদ্দিকী- সমাজসেবক এবং পাওনিয়র অব মিচুয়াল আনডারসটাডিং।
কাজী মশহুরুল হুদা- সমাজ সেবক, লিটিল বাংলাদেশ শোভাবর্ধন প্রকল্প ও সাংবাদিক।
মিঠুন চৌধুরী- উপস্থাপক।