আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থার (আইওএম) সহায়তায় লিবিয়ার দার্জ ডিটেনশন সেন্টারে আটক ৮৬ জনসহ মোট ১১৬ জন বাংলাদেশি নাগরিক দেশে ফিরেছেন। লিবিয়ার বাংলাদেশ দূতাবাস বুধবার (১৭ নভেম্বর) এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে।

বাংলাদেশ দূতাবাস বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, দূতাবাসের দীর্ঘ প্রচেষ্টা ও কূটনৈতিক যোগাযোগের পর লিবিয়ার দার্জ ডিটেনশন সেন্টারে আটক ৮৬ জনসহ মোট ১১৬ জন বাংলাদেশিকে আইওএম এর ভাড়া করা লিবিয়ার বুরাক এয়ারের চার্টার্ড ফ্লাইটটি মেতিগা বিমানবন্দর থেকে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় দেশের উদ্দেশে রওনা করে। আজ বুধবার (১৭ নভেম্বর) বেলা ১২টার দিকে তাদের বহনকারী উড়োজাহাজটি ঢাকার বিমানবন্দরে অবতরণ করেছে।

দূতাবাসের বিজ্ঞপ্তিতে আরও উল্লেখ করা হয়, দার্জ ডিটেনশন সেন্টারে আটক বাংলাদেশিদের দেশে প্রত্যাবাসনের জন্য দূতাবাস হতে দীর্ঘদিন যাবত প্রচেষ্টা চালানো হচ্ছিল। প্রত্যাবাসনকৃত বাংলাদেশিদের মধ্যে কয়েকজন অসুস্থ এবং আরও ১১ জন ত্রিপলির তারিক সিক্কা ডিটেনশন সেন্টারে আটক ছিলেন।

রাষ্ট্রদূত মেজর জেনারেল এস এম শামিম উজ জামানের অনুরোধের প্রেক্ষিতে আইওএম বিভিন্ন ডিটেনশন সেন্টারে আটক বাংলাদেশিদের প্রত্যাবাসনের জন্য দ্রুত সময়ের মধ্যে চার্টার্ড ফ্লাইটটি পরিচালনা করতে সম্মত হয়। এই লক্ষ্যে দূতাবাস থেকে দার্জ ডিটেনশন সেন্টারে আটক বাংলাদেশিদেরকে ত্রিপলিতে স্থানান্তরের জন্য লিবিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, অবৈধ অভিবাসন অধিদপ্তর, ইমিগ্রেশন অধিদপ্তর এবং আইওএমের সঙ্গে চতুর্মুখী সমন্বয় করা হয়।