বিবিআইএন মোটর ভেহিক্যালস অ্যাগ্রিমেন্ট (এমভিএ) বা মোটরযান চলাচল চুক্তি দ্রুত বাস্তবায়নের জন্য নেপালকে তাগাদা দিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। সোমবার (১৮ অক্টোবর) রাজধানীর ফরেন সার্ভিস একাডেমিতে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বিদায়ী সাক্ষাতে আসেন নেপালের রাষ্ট্রদূত ড. বংশীধর মিশ্র। এ সময় মোমেন এই তাগাদা দেন।

বাংলাদেশ, ভুটান, ভারত ও নেপালের মধ্যে অবাধ যানবাহন চলাচলের যে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে, তা বিবিআইএন নামে পরিচিত। এই চার দেশের মধ্যে বিবিআইএন মোটর ভেহিক্যালস অ্যাগ্রিমেন্ট (এমভিএ) বা মোটরযান চলাচল চুক্তি হয়েছে।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, বৈঠকে ড. মোমেন ঢাকা ও কাঠমান্ডুর দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের কথা উল্লেখ করেন। তিনি বিবিআইএন মোটরযান চুক্তি দ্রুত বাস্তবায়ন, জলবিদ্যুৎ শক্তির ক্ষেত্রে দুই দেশের সহযোগিতা ও পারস্পরিক সুবিধার্থে ব্যবসা -বাণিজ্যে সহযোগিতার ওপর জোর দেন।

রাষ্ট্রদূত মিশ্র বাংলাদেশ ও নেপালের জনগণের মধ্যে কানেক্টিভিটি বা যোগাযোগ বৃদ্ধির ওপর জোর দিয়ে বাংলাদেশ সরকারকে ভিসা ব্যবস্থা সহজ করতে অনুরোধ করেন। তিনি অগ্রাধিকার বাণিজ্য চুক্তির (পিটিএ) প্রাথমিক সমাপ্তির মাধ্যমে দুই দেশের ব্যবসা-বাণিজ্য বৃদ্ধির প্রয়োজনীয়তার ওপরও জোর দেন। বৈঠকে উভয়পক্ষ ভবিষ্যৎ সহযোগিতার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন।

বংশীধর মিশ্র ২০১৯ সালে নেপালের রাষ্ট্রদূত হিসেবে বাংলাদেশে দায়িত্ব পালন করতে আসেন। তিনি বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) বাংলাদেশ থেকে বিদায় নেবেন।