বাংলাদেশ ও ভারতের পশ্চিম বাংলার মতো জার্মানিতেও উদযাপিত হচ্ছে সনাতন ও হিন্দু সম্প্রদায়ের পবিত্র ধর্মীয় উৎসব সার্বজনীন শারদীয় দুর্গোৎসব।

প্রতিবছরের মতো জার্মানির রাজধানী বার্লিনসহ দেশটির বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যে অনুষ্ঠিত হচ্ছে সনাতন ও হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব সার্বজনীন শারদীয় দুর্গাপূজা। কোলন, মিউনিখ, ফ্রাঙ্কফুট ও ডুসেলডর্ফ ছাড়াও শুধু বার্লিনেই অনুষ্ঠিত হচ্ছে তিন তিনটি পূজা। প্রথমবারের মতো দুই বাংলার তরুণদের বার্লিন সনাতনি পূজা ও সাংস্কৃতিক সংগঠন ছাড়াও বার্লিন হিন্দু সোসাইটি ও ইগনাইট কতৃক আয়োজিত দুর্গাপুজাগুলোতে মহাষষ্ঠীর দিন থেকেই সর্বস্তরের দেবী মা দুর্গার ভক্ত ও পূজারীরা অংশ নেন মহা আনন্দে । আয়োজকরা জানান, দেবী দুর্গার আগমন সবার জন্যই হবে মঙ্গলের। তাইতো দেবীর আরাধনায় কেটে যাচ্ছে উৎসবের দিনগুলো।

জার্মানির বিভিন্ন অঙ্গরাজ্য থেকে পূজামণ্ডপ গুলোতে আসা ভক্তরা করোনা সংকট কাটিয়ে পূজায় অংশ নিতে পেরে মহাখুশি। দেবীকে অঞ্জলি প্রদানের পাশাপাশি একে অপরের সাথে বিনিময় করেছেন শারদীয় শুভেচ্ছার।
অস্থায়ী পূজামণ্ডপগুলোতে মহাষষ্ঠী থেকেই চলছে নানা ধর্মীয় আচার আচরণ। শান্তিজল গ্রহণ, সন্ধিপূজা, আরতী, নবপত্রিকা, অধিবাস ও দুই বাংলার শিল্পীদের নিয়ে বর্ণিল সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এবারের পূজায় মহাষষ্ঠীর দিন থেকেই পুজামণ্ডপগুলোতে দুইবাংলার পূজারীদের পাশাপাশি স্থানীয় জার্মানদের অংশগ্রহণ ছিল চোখে পড়ার মতো। আর আসছে শুক্রবার দেবী বিসর্জনের মধ্যে দিয়ে শেষ হবে জার্মানির এবারের শারদীয় দুর্গোৎসব।