অব্যাহত প্রতিবাদের মুখে গর্ভপাত সংক্রান্ত আইনে পরিবর্তন এনেছে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রশাসন। এর আগে ট্রাম্প প্রশাসন গর্ভপাত ইস্যুতে পরিবার পরিকল্পনা ক্লিনিকগুলোর উপর কিছু নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছিল।

যুক্তরাষ্ট্রের স্বাস্থ্য ও মানবসেবা দপ্তর সোমবার জানিয়েছে, নতুন নীতিমালা অনুযায়ী কেন্দ্রীয় পরিবার পরিকল্পনা কর্মসূচি অতীতের ওবামা প্রশাসনের নীতি অনুযায়ীই চলবে। অর্থাৎ গর্ভপাতে আগ্রহী নারীদেরকে এই কাজের জন্য উপযুক্ত সেবাদাতার কাছে পাঠাতে পারবেন চিকিৎসকরা।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ক্ষমতায় আসার পর গর্ভপাত সংক্রান্ত আইনে পরিবর্তন এনেছিলেন। পরিবার পরিকল্পনা ক্লিনিকগুলো তখন গর্ভপাতে আগ্রহীদের এই কাজের জন্য কোনো সেবাদাতার কাছে পাঠাতে পারতো না।

বাইডেন প্রশাসনের নতুন সিদ্ধান্তের কারণে যেসব স্থানীয় গর্ভপাত কেন্দ্র ট্রাম্প প্রশাসনের নীতির প্রতিবাদে সরকারের সঙ্গে কাজ না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল সেগুলো আবার ফিরে আসবে বলে আশা করছে মার্কিন ক্লিনিকগুলোর প্রতিনিধিত্বকারী সংগঠনগুলো৷ আশা করা হচ্ছে ১,৩ হাজার কেন্দ্র পুনরায় চালু হতে পারে।

তবে গর্ভপাত সংক্রান্ত নীতিতে পরিবর্তন আনলেও এই সংক্রান্ত একটি বিষয়ের সমালোচনা করেছে পরিবার পরিকল্পনা বিষয়ক সবচেয়ে বড় প্রকল্প ‘প্লানডপেরেন্টহুড’৷ টুইটারে তারা জানিয়েছে যে নতুন আইনে একটি বিধান আছে যেটি ব্যবহার করে গর্ভপাতবিরোধী চিকিৎসকেরা এখনো গর্ভপাতের সুপারিশ করা থেকে বিরত থাকতে পারবেন৷ সরকার অবশ্য জানিয়েছে, প্রচলিত কেন্দ্রীয় আইনের আলোকেই এমন সুযোগ রাখা হয়েছে৷