জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জ্যেষ্ঠ ছেলে, বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদ ক্যাপ্টেন শেখ কামালের ৭২তম জন্মদিন পালন করেছে নয়াদিল্লীস্থ বাংলাদেশ হাই কমিশন। দিবসটি পালন উপলক্ষ্যে আজ দুপুরে দূতাবাসের বঙ্গবন্ধু হল প্রাঙ্গণে দূতাবাসের হাই কমিশনার মোহাম্মদ ইমরান দূতাবাস কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা দূতাবাসের বঙ্গবন্ধু কর্নারে বঙ্গবন্ধু ও শেখ কামালের প্রতিকৃতিত্বে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করেন।

পরে শেখ কামালের জীবনী নিয়ে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। দূতাবাসের হাই কমিশনার মোহাম্মদ ইমরানের সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে আলোচনায় অংশ নেন মিনিস্টার (কনস্যুলার) সেলিম মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর।

সভাপতির বক্তব্যে ভারতে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাই কমিশনার মোহাম্মদ ইমরান বলেন, শেখ কামাল ছিলেন প্রজন্মের অহংকার। তিনি পরিবার থেকেই একটি আদর্শ নিয়ে বড় হয়েছিলেন। অত্যন্ত মেধাবী, ক্রীড়াবিদ, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব, ব্যক্তি জীবনে ছিলেন বিনয়ী, পরোপকারী এবং ভিশনারি।
ছাত্রলীগের রাজনীতিতে একজন সক্রিয় কর্মী হিসেবে তিনি বঙ্গবন্ধুর আদর্শের এই সংগঠনকে শুধু সংগঠিতই করেননি। দেশ গঠনের লক্ষ্যে ছাত্রলীগকে প্রগতিশীল এবং মেধাবী সংগঠনে পরিনত করতে সাধ্যমত কাজ করেছিলেন। বঙ্গবন্ধুর সন্তান হয়েও তিনি কখনো ক্ষমতার অপব্যবহার করেননি। তিনি বলেন, একজন মানুষের মাত্র ২৬ বছরের জীবন কত কর্মময়, গতিশীল, গঠনমূলক ও প্রানবন্ত হতে পারে শেখ কামাল তার জ্বলন্ত উদাহরণ।

পরিশেষে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় কর্তৃক নির্মিত শেখ কামালের ওপর নির্মিত প্রামান্যচিত্র প্রদর্শন এবং তার আত্মার শান্তি কামনা করে দোয়া অনুষ্ঠিত হয়।