গত ১৩ জুলাই ২০২১ লিটল বাংলাদেশ এলাকায় দশটি রেপলিকা সাইন লাগানো হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে লিটল বাংলাদেশ বিউটিফিকেশন প্রজেক্টের আরেক ধাপ এগিয়ে গেল।

থার্ড স্ট্রীটের উপর দিয়ে দু’পাশে দৃশ্যায়িত হচ্ছে উক্ত রেপলিকা সমূহ। নিউ হ্যামশার থেকে আলেকজেন্ডিয়া পর্যন্ত দু’পাশে উক্ত রেপলিকা শোভাবর্ধন করছে। রাতের অন্ধকারে গাড়ীর হেডলাইটে জ্বলজ্বল করে ওঠে এই লিটল বাংলাদেশ রেপলিকা।

লিটল বাংলাদেশ বিউটিফিকেশন প্রজেক্ট এর আহবায়ক, সাংবাদিক, কবি ও মূকাভিনয় শিল্পী কাজী মশহুরুল হুদার পরিকল্পিত ও বাফলার সভাপতি শিপার চৌধুরীর অক্লান্ত পরিশ্রমের ফসল এই রেপলিকা।

উক্ত প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য সিটি কাউন্সিল, ডিপার্টমেন্ট অব কালচারাল এফিয়ার্স, বুরো অব স্ট্রীট এবং লাইটিং, উইলশ্যায়ার নেবারহুড কাউন্সিলের অনুমোদন নিতে হয়েছে। প্রকল্পের জন্য দুই মিলিয়ন ডলারের ইন্সুরেন্স রয়েছে এবং সংযোজন করেছে এএএ সাইন কোম্পানী।

লিটল বাংলাদেশ বিউটি ফিকেশনের আহ্বায়ক কাজী মশহুরুল হুদা জানান, লিটল বাংলাদেশ সাইন উত্তোলনের পর দীর্ঘ ১০/১২ বছর লিটল বাংলাদেশ এলাকায় দেশীয় সংস্কৃতি ও কৃষ্টির কোন নিদর্শন প্রতিষ্ঠিত হয়নি। আমরা তার প্রয়োজনীয়তা অনুভব করে প্রকল্প প্রণয়ন করেছি। রেপলিকা কমিউনিটির নামকরণকে দৃশ্যায়িত করে তুলতে সহায়তা করবে এবং এই প্রকল্প স্পন্সর করেছে। বাফলা।

বাফলার সভাপতি শিপার চৌধুরী কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন, বাফলা সব সময় কমিউনিটির স্বার্থে কাজ করে যাচ্ছে এবং আগামীতেও কমিউনিটির পাশে থাকবে।

তিনি আরও জানান, বাফলা অচিরেই কমিউনিটির নেতৃবৃন্দদের নিয়ে এই প্রকল্পের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করবে।