প্রথম আরব নারী নভোচারী হিসেবে প্রশিক্ষণ নিচ্ছেন সংযুক্ত আরব আমিরাতের নোরা আল-মাতরুশি। হাজার হাজার আবেদন থেকে যে ‍দুজনকে নির্বাচিত করা হয়েছে নোরা তাদের মধ্যে একজন। খবর আরব নিউজের।

ছোট বয়স থেকেই মহাকাশে যাওয়ার স্বপ্ন দেখতেন ২৮ বছর বয়সী শারজাহ’র এই মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার। সেই আগ্রহ থেকেই ছোট বয়সে স্কুলে গ্রহ এবং নক্ষত্র নিয়ে পড়াশুনা করেছেন।

কিন্তু তখনও আমিরাতের কোনও মহাকাশ মিশন ছিল না। তবে সুযোগ পেলে একদিন ঠিকই মহাকাশে পাবেন বলে আশা ছিল তার। কেননা তার পূর্বপুরুষরা নাবিক হিসেবে যে ঐতিহ্য শুরু করেছিলেন সেটির ধারাবাহিকতা রাখতে চেয়েছিলেন নোরা।

মৃদুভাষী নোরা বলেন, আমার মায়ের দিকের পরিবারের সদস্যরা নাবিক। তারা সাগর চষে বেড়ায়। আর গ্রিক ভাষায় ‘অ্যাস্ট্রোনাট’ মানে হচ্ছে ‘নক্ষত্রের নাবিক’।

নোরা এবং তার সহকর্মী ৩৩ বছর বয়সী মোহাম্মদ আল-মুল্লা এ বছরের শেষ দিকে যুক্তরাষ্ট্র যাবেন। সেখানে নাসার জনসন স্পেস সেন্টারে গিয়ে নভোচারী হওয়ার প্রশিক্ষণ নেবেন এই দুজন।

এর আগে সুলতান আল-নেয়াদি এবং হাজ্জা আল-মানসুরি নামের আরও দুজন আমিরাতি নভোচারী হওয়ার প্রশিক্ষণ নিচ্ছেন। তারা দুবাই বসেই রুশ ভাষা শেখা থেকে শুরু করে ওঠার প্রশিক্ষণও নিচ্ছেন।