ওবামার কুকুরের মৃত্যুর দেড় মাসের মাথায় মারা গেল জো বাইডেনের কুকুর।

শনিবার এক টুইট বার্তায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট নিজেই এই তথ্য জানান।

বাইডেন লেখেন, ১৩ বছর বয়সী জার্মান শেফার্ড ‘চ্যাম্প’ আজ বাড়িতে মারা গেছে।

২০০৮ সালে বাইডেনের পরিবারে যোগ দেয় ‘চ্যাম্প’। জো বাইডেনের সর্বক্ষণের সঙ্গী ছিল চ্যাম্প। শুধু হোয়াইট হাউসে নয়, চ্যাম্পকে দেখা গেছে রুপালি পর্দাতেও। চ্যাম্প ছাড়াও বাইডেনের আরও একটি কুকুর রয়েছে। তার নাম মেজর।

বাইডেন জানিয়েছেন, দীর্ঘ ১৩ বছর চ্যাম্প আমাদের বিশ্বস্ত সঙ্গী ছিলো এবং পুরো বাইডেন পরিবার তার সঙ্গ উপভোগ করেছে।

ওবামার কুকুরটির মৃত্যু হয়েছিল ক্যানসারে। পরিবার নিয়ে হোয়াইট হাউজে আসার পর কুকুরটিকে সঙ্গে নেন তিনি। তার দুই মেয়ের ভীষণ পছন্দের ছিল প্রাণীটি।

প্রায় এক দশক ধরে ওবামার পরিবারের সঙ্গে ছিল ওই কুকুর। মার্কিন প্রেসিডেন্টদের অনেকেই এভাবে খুব যত্ন করে কুকুর লালন-পালন করেন।

২০১৬ সালে কুকুরটিকে অপহরণের চেষ্টা করে ফেঁসে যান এক ব্যক্তি। নর্থ ডাকোটা থেকে আসা স্কট স্টকার্ট নামের ওই ব্যক্তি অস্ত্র নিয়ে সেজেগুজে ফন্দি করেছিলেন পোষা কুকুরটিকে চুরি করবেন। এ জন্য তিনি গাড়িতে অস্ত্রও নিয়ে এসেছিলেন। কিন্তু ওয়াশিংটন পুলিশের কাছে ধরা পড়ে যান।