নতুন নোটিশে ১১০টি দেশের ওপর থেকে ভ্রমণ ঝুঁকির সতর্কবার্তা উঠিয়ে নিলেও বাংলাদেশকে দেড় মাসের বেশি সময় এই তালিকায় রাখল যুক্তরাষ্ট্র।

করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় গত ২০ এপ্রিল বাংলাদেশকে লেভেল-৪ ট্রাভেল হেলথ নোটিশের অন্তর্ভুক্ত করে দেশটি।

যুক্তরাষ্ট্রের সেন্টারস ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (সিডিসি) গত সোমবার (৭ জুন) তাদের ভ্রমণ নোটিশ আপডেট করেছে। বাংলাদেশ অংশ সর্বশেষ আপডেট হয় ১৯ মে। সেখানে দেশটি নিজেদের দেশের নাগরিকদের জন্য নতুন কিছু পরামর্শ যোগ করেছে।

বলা হয়েছে, ‘কারো অবশ্যই বাংলাদেশে আসার প্রয়োজন পড়লে ভ্যাকসিনের সম্পূর্ণ ডোজ নিতে হবে। ভ্যাকসিন নেয়া মানুষেরাও দেশটিতে সংক্রমণের ঝুঁকিতে আছেন।’

গত জানুয়ারির শেষ দিকেও যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশ ভ্রমণে নিজেদের নাগরিকদের সতর্ক করেছিল। এবার সরাসরি না আসার পরামর্শ দিয়ে বলেছে, ‘কভিড-১৯ রোগের কারণে বাংলাদেশ ভ্রমণ করবেন না। বাংলাদেশে অপরাধ, সন্ত্রাসবাদ এবং অপহরণ থেকে রক্ষা পেতে অতিরিক্ত সতর্কতা অবলম্বন করবেন।’

যুক্তরাষ্ট্র তাদের লেভেল-৪ নোটিশে মোট ৬১টি দেশকে অন্তর্ভুক্ত করেছে। এর মধ্যে ৭ জুন চারটি দেশকে যোগ করা হয়েছে।