সৌদি আরবে কর্মরত বিদেশি শ্রমিকরা এখন থেকে তাদের মালিকের অনুমতি ছাড়াই চাকরি পরিবর্তন করতে পারবেন। দীর্ঘ প্রতিক্ষার পর কাফালা ব্যবস্থায় এই পরিবর্তন আনলো মধ্যপ্রাচ্যের দেশটি।

সৌদির কাফালা ব্যবস্থা অনুযায়ী, যেই মালিক বা কফিলের নামে শ্রমিকদের ভিসা ইস্যু করা হতো, সেই মালিকের নিয়ন্ত্রণেই থাকতে হতো। ওই মালিকই কেবল শ্রমিকদের ভিসা নবায়ন কিংবা চাকরিচ্যুত করে দেশে ফেরত পাঠাতে পারতেন।

অধিকার গ্রুপগুলোর অভিযোগ, এই ব্যবস্থায় নির্মাণ ও গৃহস্থালি কাজে নিয়োজিত শ্রমিকরা নিয়োগকারীদের নিপীড়নের শিকার হয়ে থাকেন। পাসপোর্ট আটকে রেখে শ্রমিকদের অতিরিক্ত ঘণ্টা কাজে বাধ্য করা হয়। কখনো কখনো তাদের মজুরি আটকে রাখা হয়।

গত বছরের নভেম্বরে সৌদির মানবসম্পদ মন্ত্রণালয় বিদ্যমান কাফালা ব্যবস্থায় পরিবর্তন আনার ঘোষণা দেয়।

নতুন ব্যবস্থায় অভিবাসী শ্রমিকরা তাদের চুক্তির মেয়াদ অনুযায়ী চাকরি পরিবর্তন করতে পারবেন। মালিককে একটি নির্দিষ্ট মেয়াদে নোটিস দেওয়ার মাধ্যমে তারা চাকরি পরিবর্তন করতে পারবেন। এছাড়া মালিকের অনুমতি ছাড়াই তারা যে কোনো সময়ের জন্য যে কোনো স্থানে ভ্রমণ করতে পারবেন।