সম্প্রতি আলজাজিরায় বাংলাদেশ নিয়ে সম্প্রচারিত প্রতিবেদন মিথ্যা প্রমাণ করতে সরকারের প্রতি চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।

শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এক মানববন্ধনে তিনি এ চ্যালেঞ্জ দেন।

বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা ও সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের বীর উত্তম খেতাব বাতিলের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে এই কর্মসূচি পালন করে ২০-দলীয় জোটের শরিক দল ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এনডিপি)।

এতে সরকারকে উদ্দেশ করে গয়েশ্বর চন্দ্র বলেন, ‘গলাবাজি, চাপাবাজি ছেড়ে সঠিকভাবে আপনি মোকাবিলা করেন। প্রমাণ করে দেন যে, আলজাজিরা যা বলছে এটা সঠিক না, সত্য না মিথ্যা। এই কাজটুকু করতে এত কষ্ট কেন?’

তিনি বলেন, ‘আলজাজিরার ঘটনা নিয়ে আপনাদের তো এতটা পেট খারাপ হওয়ার কথা না। কারণ আপনাদের হজম শক্তি কম না। অনেক কিছু হজম করেছেন।… এটা তো লক্ষ ঘটনার একটা মাত্র। এটাতে মাথা খারাপ হওয়ার এত কি হলো!’

এ সময় বিএনপির জ্যেষ্ঠ এ নেতা বলেন, ‘জিয়াউর রহমান শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বকে মেনে তার অবর্তমানে স্বাধীনতার ঘোষণা করেছিলেন। অর্থাৎ শেখ মুজিবুর রহমান জেলখানায় থাকলেও তার না পারা কাজটি জিয়াউর রহমান করেছিলেন। এ জন্য আমি ভেবেছিলাম, স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে জিয়াউর রহমানকে মরণোত্তর সংবর্ধনা দেওয়া হবে।’

এছাড়া জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের (জামুকা) সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘ইদানীং অসংখ্য ভুয়া মু্ক্তিযোদ্ধা বানানো হয়েছে। অনেকে ভুয়া মু্ক্তিযোদ্ধার সনদ দিয়ে ভাতা তুলছেন, চাকরি করছেন। এসব দেখে মনে হয়, সম্মুখযুদ্ধের মুক্তিযোদ্ধার চেয়ে তাদের অবদান বেশি।’

মানববন্ধনে অন্যদের মধ্যে লেবার পার্টির চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান ও এনডিপির চেয়ারম্যান কে এম আবু তাহের বক্তব্য দেন।