স্থানীয় সরকার মন্ত্রী ঢাকা দক্ষিণ ও উত্তরকে চিঠি দিয়ে বিকল্প ব্যবস্থা না করে নগরীর ইন্টারনেট ও ক্যাবল টিভির ‘ঝুলন্ত তার’ না কাটার আহ্বান জানানো হয়েছে। বিষয়টি আইন মন্ত্রীও গুরুত্বের সঙ্গে নিয়েছেন। তাই ইন্টারনেট ধর্মঘট প্রত্যাহার করেছে ইন্টারনেট সেবা প্রদানকারী ও কেবল অপারেটরদের সংগঠন।

এ বিষয়টি আগামীকাল রবিবার প্রধানমন্ত্রীর ডেস্কে যাচ্ছে বলেও জানা গেছে। সাত দিনের মধ্যেই সমস্যার সমাধান করে দেবেন বলে জানিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মেস্তাফা জব্বার।

দুই সংগঠনের উদ্দেশ্যে মেস্তাফা জব্বার বলেন, ধর্মঘটের ডাকে আপনাদের বিজয় হয়েছে। ১৭ অক্টোবর, শনিবার সন্ধ্যা ৬টায় ইন্টারনেট সেবা প্রদানকারী ও কেবল অপারেটরদের সংগঠনের সঙ্গে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের জরুরী বৈঠকে এসব কথা বলেন মন্ত্রী।

বৈঠকে মন্ত্রীর আশ্বাসে ধর্মঘট প্রত্যাহার করে নেয় কোয়াব ও আইএসপিএবি। প্রথমে ধর্মঘট প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন কোয়াব প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি আনোয়ার পারভেজ। অপরদিকে আইএসপিএবি সভাপতি আমিনুল হাকিম সব সিটি করপোরেশনেই যেন বিকল্প ব্যবস্থা না করে ঝুলন্ত তার অপসারণ না করা হয় সে বিষয়ে মন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে আগামী কালের জন্য ধর্মঘট প্রত্যাহারের প্রতিশ্রুতি দেন।

এর আগে, বিকল্প ব্যবস্থা ও আগাম কোনো খবর বা সময় না দিয়ে অব্যাহতভাবে ক্যাবল কাটার প্রতিবাদে ইন্টারনেট ও ক্যাবল টিভিসেবা বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছে সংযোগদাতা প্রতিষ্ঠানগুলো। ঘোষণা মোতাবেক আগামী ১৮ অক্টোবর, রবিবার থেকে প্রতিদিন তিন ঘণ্টা করে এই সেবা বন্ধ থাকবে বলেও জানানো হয়েছিল।

ক্যাবল কাটা বন্ধ না করা পর্যন্ত প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত তিন ঘণ্টা তাদের সেবা বন্ধ রাখবে বলে জানিয়েছিল ইন্টারনেট ও কেবল টিভি সংযোগ প্রতিষ্ঠানগুলো। কিন্তু মন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের পর সেই সমস্যার সমাধান হলো।