যুক্টরাষ্ট্রের লস এঞ্জেলেসের লিটল বাংলাদেশ অধ্যুষিত এলাকায় জাহিদ আহমেদ (৫৫) নামের এক প্রবাসী বাংলাদেশীকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করেছে স্থানীয় পুলিশ। গত ১৩ অক্টোবর (মঙ্গলবার) ২০২০ রাত ৯টার সময় তাকে উদ্ধার করা হয়।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, ওই প্রবাসী একাই বসবাস করতেন। বিগত তিনদিন ধরে তার কোন খোঁজ না পেয়ে বিভিন্ন হাসপাতালে সন্ধান করা হয়। পরে কোথাও না পেয়ে তার বাসায় গিয়ে দরজা বন্ধ পায় এবং অনেক ডেকেও কোন সাড়া মেলে না। পরে পুলিশকে খবর দিলে দরজা খুলে জাহিদ আহমেদকে চেয়ারের উপর মৃত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে।

আরও জানা যায়, তার শারীরিক অবস্থা খারাপ ছিল। সর্ব শেষ তিনি টেলিফোনে জানিয়েছিলেন, তিনি জ্বর ও শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন। প্রথম দিকে পরিবার ধারণা করে যে তিনি করোনায় ভুগছিলেন। যদিও ডাক্তারের রিপোর্টে তার শরীরে করোনার কোন প্রমাণ মেলেনি। তিনি হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করতে পারেন বলেই এখন পর্যন্ত ধারণা করা হচ্ছে।

এই অস্বাভাবিক মৃত্যুতে কমিউনিটিতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

এ নিয়ে কমিউনিটির এক্টিভিস্ট মমিনুল হক বাচ্চু বলেন, যারা একা একা বসবাস করেন তারা এই করোনা কালে যেন সর্বদা পরিবারের সঙ্গে যেনো যোগযোগ রাখেন। তাতে বিপদে পড়লেও সহযোগিতা করা সম্ভব হবে।

উল্লেখ্য, মরহুম জাহিদ আহমেদ বাংলাদেশের পুরান ঢাকার অধিবাসি। তিনি লস এঞ্জেলেসের সুপরিচিত রঞ্জুর স্ত্রীর বড় ভাই।