আগাম ঘোষণা না দিয়ে পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দেওয়ায় ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় অনুতপ্ত বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আবদুল মোমেন। আজ বৃহস্পতিবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘শুনেছি ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় খুব অনুতপ্ত। কারণ তারাও জানতো না যে হঠাৎ করে এটা (পেঁয়াজ) বন্ধ হয়েছে। কারণ আমাদের একটি আন্ডারস্ট্যান্ডিং হচ্ছে যে এই ধরনের অ্যাবরাপ্ট ডিসিশন নেওয়ার আগে আমাদের একটু জানানো। তাদের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় নাকি এই সম্পর্কে কিছুই জানতো না।’

তবে ঘোষণা ছাড়াই পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে ভারত অনুতপ্ত হলেও গেল দুই দিনে দেশে আগের এলসির একটি ট্রাকও ঢোকেনি। পূর্বের খোলা এলসির বিপরীতে দেশের অন্যতম স্থলবন্দর যশোরের বেনাপোলে শতাধিক, সাতক্ষীরার ভোমরা স্থলবন্দরে ৫শ’, দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দরে প্রায় ২শ’ ট্রাক পেঁয়াজ বোঝাই করে সীমান্তের ওপারে ভারতের অভ্যন্তরে আটকে রয়েছে।

গত ১৫ সেপ্টেম্বর ভারত সরকার স্থলবন্দরে আটকে থাকা পেঁয়াজের ট্রাক বাংলাদেশে ঢোকার শর্তসাপেক্ষে অনুমতি দিলেও এখনো পর্যন্ত একটি ট্রাকও বাংলাদেশে প্রবেশ করেনি।