করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে যুক্তরাষ্ট্রের জর্জিয়া অঙ্গরাজ্যের নরক্রস শহরের প্রবীণ বাংলাদেশি আবুল হাশেম সরদার (৮০) এবং তার স্ত্রী রাজিয়া বেগম (৭২) মারা গেলেন একদিনের ব্যবধানে। এর ফলে এই অঙ্গরাজ্যে প্রবাসীদের মধ্যে করোনা ভীতি দেখা দিয়েছে।

উল্লেখ্য, মধ্য মার্চ থেকে করোনা মহামারিতে নিউইয়র্ক, নিউজার্সি অঙ্গরাজ্যে তিন শতাধিক প্রবাসীর প্রাণ ঝরলেও জর্জিয়ায় তেমন পরিস্থিতির উদ্ভব হয়নি। সকলেই মোটামুটি স্বস্তির মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি মেনে দিনাতিপাত করছিলেন। এমন অবস্থায় প্রবীণ এই দম্পতির মৃত্যু হলো।

আটলান্টার সংবাদদাতা রুমি কবীর জানান, গত ৯ সেপ্টেম্বর বিকেলে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন আবুল হাশেম সরদার। আগের সপ্তাহে তিনি ও তার স্ত্রী রাজিয়া বেগম হাসপাতালে ভর্তি হন। রাজিয়া বেগমও মারা গেছেন ১০ সেপ্টেম্বর। জর্জিয়া অঙ্গরাজ্যের আততাকোয়া মসজিদ পরিচালিত নিউটন কাউন্টির মুসলিম গোরস্থানে উভয়ের জানাজা শেষে দাফন করা হয়।

জানা গেছে, মরহুম দম্পতি বাস করতেন পুত্র-জামাতা শের মোহাম্মদ মানিকের বাসায়। করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন মানিকের স্ত্রী রউশন আরা রোজ, বড় ছেলে সবুজ ও সবুজের স্ত্রী ফারজানাও। মানিক নিজেও নিশ্চিত হতে করোনা টেস্ট করে রেজাল্টের অপেক্ষা করছেন। ফলে ওই বাড়ির সবাই বর্তমানে হোম কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন। কেবলমাত্র ছোট ছেলে ১৪ বছর বয়সী সিয়াম এখনও করোনা মুক্ত আছে বলে পরিবার থেকে জানানো হয়েছে।

এদিকে, করোনা সংক্রমণের হার নিউইয়র্ক, নিউজার্সি, মিশিগান, কানেকটিকাট, পেনসিলভানিয়া, ম্যাসেচুসেট্স অঙ্গরাজ্যে সন্তোষজনক ভাবে হ্রাস পাওয়ায় প্রবাসীরা কিছুটা স্বস্তিতে দিনাতিপাত করছেন। যদিও ইউনিভার্সিটি পুনরায় খোলায় অনেক অভিভাবক তার সন্তান নিয়ে মহা-দুশ্চিন্তায় দিনাতিপাত করছেন। নিউইয়র্ক অঞ্চলের পাবলিক স্কুলের ক্লাস ২১ সেপ্টেম্বর শুরুর পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে স্বাস্থ্যবিধি মেনে।