যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণাঞ্চলীয় রাজ্য লুইজিয়ানায় ঘূর্ণিঝড় লরার আঘাতে ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার দেশটির কর্তৃপক্ষ ও স্থানীয় গণমাধ্যম এমন তথ্য জানিয়েছে।

অন্তত ১০ জন নিহত হওয়ার খবর নিশ্চিত করেছেন লুইজিয়ানার গভর্নর বেল এডওয়ার্ডস। আর লোকজনের বাড়িঘরে গাছপালা উপড়ে পড়ে আরও চার জন নিহত হয়েছেন।-খবর এএফপির

ঘণ্টায় দেড়শ মাইল বেগের ঝড়ো হাওয়া নিয়ে বৃহস্পতিবার লুইজিয়ানার ছোট শহর ক্যামেরনের ওপর দিয়ে চার মাত্রার এ ঘূর্ণিঝড়টি স্থলে আঘাত হানে।

দক্ষিণাঞ্চলীয় কয়েকটি অঙ্গরাজ্যে তাণ্ডব চালানো লরার কারণে প্রায় ৯ লাখ বাড়িঘর ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। একটি শিল্প প্ল্যান্টের রাসায়নিকেও আগুন লাগে।

বিবিসি জানিয়েছে, পরে শক্তি হারিয়ে ক্রান্তীয় ঝড়ে পরিণত হলেও লরার কারণে এখনও যুক্তরাষ্ট্রের বেশ কয়েকটি অঙ্গরাজ্যে তুমুল বৃষ্টি হচ্ছে।

বিপর্যয় মোকাবেলায় কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে আর্থিক সহযোগিতা চেয়েছেন বেল এডওয়ার্ডস। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প হারিকেনের তাণ্ডবে বিধ্বস্ত এলাকা পরিদর্শনে শনিবার অঙ্গরাজ্য দুটিতে যাচ্ছেন বলে জানিয়েছে হোয়াইট হাউস।

যুক্তরাষ্ট্রে আঘাত হানার আগে লরা ক্যারিবীয় অঞ্চলের কয়েকটি দেশেও তাণ্ডব চালিয়েছিল। লরা ও আরেকটি ঝড় মার্কো ওই অঞ্চলের অন্তত ৩১ জনের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে।